লকডাউনে চীনের ৪ লাখ মানুষ

নতুন করে করোনা সংক্রমণ বাড়ায় চীনে ৪ লাখ মানুষকে লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে।

দেশটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বিবিসির খবরে জানানো হয়, বেইজিং থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে হুবেই প্রদেশের আনজিন শহর পুরোপুরি বন্ধ ও নিয়ন্ত্রিত থাকবে।  

বিবিসি জানায়, শুধু জরুরি কাজে নিয়োজিত ব্যক্তিরা বাড়ি থেকে বের হতে পারবেন। এছাড়া কোনো পরিবারের একজন সদস্য দিনে মাত্র একবার দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনার জন্য বের হতে পারবেন। ওই এলাকার বাইরের কোনো ব্যক্তি সেখানকার কোনো গ্রাম বা ভবনে প্রবেশ করতে পারবেন না। অন্যথায় পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

চীনা গণমাধ্যম জানায়, বেইজিংয়ে গত দুই সপ্তাহ আগে নতুন করে করোনা সংক্রমণ শুরু হয়। এরপর আনজিন শহরে ১৮ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। 

যদিও ইউরোপ-আমেরিকার তুলনায় আক্রান্তের সংখ্যা খুবই কম, তারপরেও সংক্রমণ প্রতিরোধে দ্রুত ব্যবস্থা নিয়েছে চীন। বেইজিংয়ের আশপাশের এলাকায় কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। নতুন সংক্রমণের আগে ৫৭ দিন বেইজিংয়ে নতুন করে কেউ করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়নি।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে প্রথম কোনো ব্যক্তি প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়। এরপর বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে মহামারি আকার ধারণ করে ভাইরাসটি। এখন পর্যন্ত সারা বিশে এক কোটির বেশি মানুষ ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছে এবং ৫ লাখের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ৫৫ লাখের বেশি মানুষ।

মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

<