পিপিই ছাড়া চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশনা বাতিল

করোনাভাইরাসের উপসর্গ আছে এমন রোগীকে ব্যক্তিগত সুরক্ষা পোশাক (পিপিই) ছাড়াই প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশনা স্থগিত করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। গতকাল বুধবার কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষাপটে সব হাসপাতালে সব রোগীদের চিকিৎসা দেয়ার জন্য চিকিৎসকদের জন্য একটি নির্দেশনা দেয় অধিদফতর।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (হাসপাতাল) আমিনুল হাসান স্বাক্ষরিত ওই নির্দেশিকায় বলা হয়, ‌‘যদি কোনো রোগীর কোভিড-১৯–এর লক্ষণ থাকে, তবে প্রথম চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দেবেন এবং প্রয়োজনে পিপিই পরিধানকৃত দ্বিতীয় চিকিৎসকের কাছে পাঠাবেন এবং তিনি পিপিই পরিহিত অবস্থায় রোগীকে চিকিৎসা সেবা দেবেন।’

ওই আদেশে আরো বলা হয় ‘সরকারি ও বেসরকারি সকল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসক কোনো রোগীকে চিকিৎসা সেবা প্রদানে অস্বীকৃতি জানাতে পারবেন না।’

কিন্তু এতে প্রথম চিকিৎসকের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি তৈরি হওয়ায় আশঙ্কায় ব্যাপক সমালোচনা ওঠে। চিকিৎসকদের অনেকেই এ নিয়ে আপত্তি জানান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সন্ধ্যায় স্থগিত করা হয় ওই নির্দেশনা।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (হাসপাতাল) আমিনুল হাসান গতকাল রাতে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘নির্দেশনাটি পুনরায় সমন্বয় করার জন্য স্থগিত করেছি। আজ সন্ধ্যায় করা হয়েছে। রিভাইজড নির্দেশনাটি কাল দিয়ে দেয়া হবে।’

সংশোধিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশব্যাপী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলোয় সাধারণ রোগীদের প্রাথমিক চিকিৎসা, ইমার্জেন্সি চিকিৎসা (জরুরি সেবা) এবং নতুন রোগীদের ভর্তি করা হচ্ছে না। এমনকি ভর্তি রোগীদের ছাড়াও হচ্ছে না। এতে জনগণ স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এবং ব্যাপকভাবে স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি হচ্ছে। সংশোধিত নতুন ওই বিজ্ঞপ্তিতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ নিশ্চিত করার জন্য সবাইকে নির্দেশ দেয়া হয়।

মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh