ফনেটিক ইউনিজয়
থেমে নেই ফুলবাড়ী সীমান্তে মাদক চোরাচালান!
ফয়সাল শামীম, কুড়িগ্রাম

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে গত এক বছরে শুধু পুলিশি অভিযানে মাদক নিয়ন্ত্রণ ও চোরাচালান প্রতিরোধ আইনে ১৭৪টি মামলা ও ২০৮ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। উদ্ধার করা হয়েছিল ৪২১ কেজি গাঁজা, ৫২৯ পিস ইয়াবা, ৯০১ বোতল ফেনসিডিল, ২৮৯ বোতল মদ ও ৩১৮ বোতল স্কাপ সিরাপ। এর পরও থেমে নেই ভারতীয় মাদক চোরাচালান।
সরেজমিনে দেখা যায়, ফুলবাড়ী উপজেলার উত্তর-পূর্ব এলাকার ৩৬ কিলোমিটারজুড়ে ভারত সীমান্ত অবস্থিত। এই দীর্ঘ সীমান্ত এলাকাজুড়েই মাদক পাচারের নিরাপদ রুট হিসেবে পরিচিত। কথিত আছে, মাদক চোরাচালানের কাঁচা টাকার গন্ধে এলাকার মানুষজনসহ অনেক উচ্চশিক্ষিত বেকার যুবক জীবিকার জন্য এ ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছেন।
জানতে চাইলে ফুলবাড়ী সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ জানান, সীমান্তে অনেক শিক্ষিত বেকার যুবক কর্মসংস্থান জোগাড় করতে না পারায় মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েছেন। এ ছাড়া সীমান্তের অনেক গরিব মানুষ অভাবের তাড়নায় নগদ টাকার বিনিময়ে চোরাকারবারিদের কথায় জীবন বাজি রেখে অবৈধ মাদকের ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েছেন। ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নজির হোসেন বলেন, চোরাচালান প্রতিরোধে সীমান্তে সরকারিভাবে জনসচেতনা জোড়দার করে তরুণ ও যুবসমাজকে মাদকের মরণনেশা ও ব্যবসা থেকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। অন্যদিকে প্রশাসন প্রতিটি ইউনিয়নের সচেতন মহলের সহযোগিতায় মাদকের বিরুদ্ধে গণসচেতনতা বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

Disconnect