ফনেটিক ইউনিজয়
বিকল্প জ্বালানি ‘কালো মাটি’
জাহাঙ্গীর আলম ভুঁইয়া, সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলে কালো মাটি বিকল্প জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করছেন গৃহিণীরা। এ মাটি জেলার বিভিন্ন নদী, বিল ও হাওরে পাওয়া যায়। এ মাটি কয়লার মতো জ্বলে। তাই এটি স্বল্প মূল্যে পাওয়া যায় আর চাহিদাও রয়েছে হাওরাঞ্চলে।
জানা যায়, জেলার হাওরাঞ্চলে এ কালো মাটির ব্যবহার প্রায় ২০ বছর ধরে রান্নার কাজে ব্যবহার করছেন গৃহিণীরা। জেলার সীমান্তবর্তী নদীগুলোর মাধ্যমে প্রবাহিত পাহাড়ি ঢলের সাথে ভেসে আসা গাছের পাতা, ডালপালা হাওরের মাটির নিচে দীর্ঘদিন ধরে মিশে এক হয়ে কালো রূপ ধারণ করে। এরপর শুষ্ক মৌসুমে খুঁড়ে পাওয়া যায় কালো মাটি। সুনামগঞ্জ জেলার প্রায় সব হাওর থেকে মাটি কেটে রোদে শুকিয়ে তৈরি করা হচ্ছে কালো মাটি দিয়ে জ্বালানি। জেলার প্রায় সব গ্রামের লোক ফাল্গুন থেকে চৈত্রের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত এ মাটি সংগ্রহ করে। নদী, বিল ও হাওরে ৪-৫ ফুট মাটি খুঁড়লেই বেরিয়ে আসে গুপ্তধনের মতো লুক্কায়িত এ মাটি। বিভিন্ন এলাকার কালো মাটি সংগ্রহকারী নারী-পুরুষরা বলেন, এক মৌসুমে একজন ১০০-১৫০ মণ কালো মাটি সংগ্রহ করতে পারে। হাওরাঞ্চলে বর্ষাকালে চারদিকে পানিতে ভরপুর থাকায় জ্বালানি সংগ্রহ করতে না পারায় জ্বালানির তীব্র সংকটে ভোগান্তির শেষ নেই হাওরপাড়ের মানুষের। তাই শুষ্ক মৌসুমে হাওরপাড়ের গৃহিণীরা সারা বছরের জ্বালানি হিসেবে বাড়িতে কালো মাটি সংগ্রহ করে রাখেন। এছাড়া মাঝারি আকারের এক বস্তা জ্বালানি উপযোগী কালো মাটি বিক্রি হয় ১৫০-৩০০ টাকায়।

Disconnect