ফনেটিক ইউনিজয়
ফ্লুইড দিয়ে কার্ডের নাম মোছার অভিযোগ
ইলিয়াস আহমেদ, ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার গালাগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের ১০০ জন হতদরিদ্রের নাম ফ্লুইড দিয়ে মুছে নতুন নামে চাল দেয়ার অভিযোগ উঠেছে খাদ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। বিষয়টি নিয়ে উপজেলাজুড়ে চলছে নানা সমালোচনা। তদন্তে নেমেছে উপজেলা প্রশাসন ও জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা। তবে স্থানীয় সংসদ সদস্য শরীফ আহম্মেদের নির্দেশেই ফ্লুইড দিয়ে পুরনো নাম মুছে নতুন নামের তালিকা করা হয়েছে বলে জানান উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা রুবাইদুর রানা।
এ নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন চেয়ারম্যান জিয়াউল হক জিয়া। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, খাদ্য কর্মকর্তা আমাকে না জানিয়ে পুরনোদের নাম ফ্লুইড দিয়ে মুছে ১৪৪টি কার্ডের মধ্যে ১০০টি কার্ড তার লোকদের মাঝে বিতরণ করেছেন। ১৪৪ জন তালিকাভুক্ত হতদরিদ্র কার্ড না পেয়ে পরিষদে এসে বিক্ষোভ করছেন। অনিয়মের বিষয়টি তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তিনি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সারমিন সুলতানা জানান, হতদরিদ্রদের ১০০টি নতুন কার্ড বিতরণ করেছে, সে বিষয়টি আমি অবগত রয়েছি। কিন্তু কার্ড বিতরণে অনিয়মের বিষয়টি আমার জানা নেই। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।
এ বিষয়ে রুবাইদুর রানা বলেন, গালাগাঁও ইউনিয়নে ২ হাজার ১২২টি কার্ড বিতরণ করার পর বাকি ১৪৪টি কার্ডের লোক না আসায় আমি স্থানীয় সংসদ সদস্য শরীফ আহম্মেদের নির্দেশে ১০০টি কার্ডের নাম ফ্লুইড দিয়ে মুছে নতুন নামের তালিকা করেছি। বাকি ৪৪টি কার্ড চেয়ারম্যানের জন্য রেখে দিয়েছি।
সংসদ সদস্য শরীফ আহম্মেদ জানান, আমি খাদ্য কর্মকর্তাকে হতদরিদ্রের নাম পরিবর্তন করে নতুন নাম সংযুক্ত করার নির্দেশ দিইনি। ভুল হয়ে থাকলে বিষয়টি কঠোর হস্তে দমন করা হবে।

Disconnect