ফনেটিক ইউনিজয়
বাড়ছে জনদুর্ভোগ
শওকত হোসেন, ধামরাই

ঢাকার ধামরাই উপজেলার ওপর দিয়ে চলে যাওয়া ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের দুই পাশে অপরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠেছে অসংখ্য শিল্পপ্রতিষ্ঠান। এসব শিল্পপ্রতিষ্ঠান মানছে না সরকারি কোনো নিয়মনীতি, মানছে না পরিবেশ অধিদপ্তরের আইনকানুন। ইসলামপুর থেকে বারোবাড়িয়া পর্যন্ত ২৫-২৮টি ছোটবড় শিল্পপ্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন লক্ষাধিক শ্রমজীবী।
সরেজমিনে দেখা যায়, আকিজ ফুড অ্যান্ড বেভারেজ, ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস, আজিম গ্রুপের স্টিল কারখানা, একেএইচ গার্মেন্টস, সরকার স্টিল মিল, গ্রাফিকস টেক্সটাইল, কামালপুরে বিলট্রেড গ্রুপ, করিম টেক্সটাইল, বিসিক শিল্পনগরী, প্রতীক সিরামিকস, পলমল গ্রুপ, ¯েœাটেক্স অ্যাপারেল, একমি গ্রুপ, মুন্নু সিরামিকস, বাটা সু কোম্পানিসহ অসংখ্য ছোটবড় শিল্পপ্রতিষ্ঠানের শ্রমিকদের আসা-যাওয়ার জন্য যেসব যানবাহন ব্যবহার করা হয়, তা প্রতিষ্ঠানের সামনে পর্যাপ্ত পার্কিং ব্যবস্থা না থাকায় সব শ্রমিকবাহী বাস হাইওয়ের উপরেই পার্কিং করা হচ্ছে। এতে ৮-১০ কিলোমিটার পর্যন্ত যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। যানজটের কারণে সাধারণ জনগণের ২০ মিনিটের রাস্তা পাড়ি দিতে হচ্ছে ২-৩ ঘণ্টায়। স্থানীয় প্রশাসন এ বিষয়ে নির্দিষ্ট কোনো পদক্ষেপ না নেয়ায় প্রতিনিয়ত ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা। অন্যদিকে এসব কারখানার বর্জ্য পদার্থে দূষিত হচ্ছে পানি, আবহাওয়া ও অসুস্থ হয়ে পড়ছে সাধারণ জনগণ, পশু-পাখি। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে গাছপালা, কৃষিজমি। ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম বলেন, আমরা প্রতিটি কোম্পানিকে অবহিত করেছি, তারা যেন ফ্যাক্টরির সামনে পর্যাপ্ত পরিমাণ পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করেই তাদের শ্রমিকবাহী বাসগুলো পার্কিং করে।

Disconnect