ফনেটিক ইউনিজয়
দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সহোদর
শাহাদাত তৌহিদ, ফেনী

ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার ৯ নং শুভপুর ইউনিয়নের উত্তর মন্দিয়া গ্রামের মৃত মো. মোস্তফার তিন ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৫), শহীদুল ইসলাম (৩২) ও মোমিনুল ইসলাম (২৮) জন্ম থেকেই অন্ধ। তিন সহোদরের জননী ছকিনা বেগম জানান, আমি, দুই পুত্রবধূসহ ছয় সদস্যের সংসার তাদের তিন ভাইকে চালাতে হয়। অনেক বছর আগে তার স্বামী মারা যান। তিন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিশুপুত্রকে নিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েন তিনি। কিন্তু নিজ সন্তানদের কোনো অসম্মানজনক পেশায় দেয়ার কথা চিন্তাও করেননি তিনি। ভাইদের দেয়া অর্থ সাহায্যে ও নিজের তৈরি করা ডালা, কুলা, চাঁইসহ গৃহস্থালি জিনিস বিক্রি করে এক-আধপেটা করে নিজের সন্তানদের বড় করেন তিনি। কিন্তু একপর্যায়ে সংসার চালানো তার পক্ষে আর সম্ভব হচ্ছিল না। পরবর্তীতে বড় ছেলেকে সাথে নিয়ে গ্রামের বাড়ি বাড়ি গিয়ে চকোলেট, চুইংগাম, আচার, বিস্কুট ইত্যাদি বিক্রি করা শুরু করেন। বাকি দুই ভাইও এ ক্ষুদ্র ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত হয়। তিন ভাইয়ের সামান্য সঞ্চয় ও মায়ের কিছু আয় দিয়ে এবং উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের সহযোগিতায় একটি কনফেকশনারি চালু করেন। কিন্তু বর্তমানে দোকানটিও বন্ধ। পুঁজির অভাবে দোকানটি চালাতে পারছেন না তারা।
তিন সহোদর জানান, জন্ম থেকে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী হলেও মানুষের কাছে হাত না পেতে চেষ্টা করছি নিজের পায়ে দাঁড়াতে। সরকারি-বেসরকারি কোনো সংস্থা বা হৃদয়বান ব্যক্তি যদি আমাদের বিনা সুদে কিছু টাকা ঋণ হিসেবে দেয়, তাহলে আমরা কাজ করে স্বাবলম্বী হতে চাই। এ বিষয়ে ছাগলনাইয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল বলেন, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের সহযোগিতা করা হয়েছে ও ভবিষ্যতে তাদের সহযোগিতা করার চেষ্টা করব।

Disconnect