ফনেটিক ইউনিজয়
সেতুর অভাবে দুর্ভোগ
এরশাদ আলম, জলঢাকা (নীলফামারী)

নীলফামারী জেলার জলঢাকায় দীঘল নদীর ওপর একটি সেতু না থাকায় দুটি ইউনিয়নের ১৫টি গ্রামের হাজার হাজার মানুষকে চলাচলে দুর্ভোগ  পোহাতে হচ্ছে। এ সাঁকোটি সেতুতে পরিণত করার দীর্ঘদিনের দাবি এলাকাবাসীর। সেতুটি নির্মাণে প্রতিশ্রুতি থাকলেও কথা রাখেনি নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা। আসছে বর্ষাকাল সাঁকোটি ভেঙে যেতে পারে। তাই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন হাজারো মানুষ।
সরেজমিনে জানা যায়, উপজেলার কৈমারী ইউনিয়ন ও শৌলমারী ইউনিয়নের মাঝামাঝি টেক্কার মোড়ে দীঘল নদীর ওপর সেতু না থাকায় এলাকাবাসীর উদ্যোগে নির্মিত হয় একটি বাঁশের সাঁকো। ১৫টি গ্রামের প্রায় ৩০ হাজার মানুষ এ ঝুঁকিপূর্ণ সাঁকো দিয়ে পারাপার হয়। কৃষক আজিজুল হক জানান, ওপারে আমার অনেক জমি আছে। কিছুদিন পর ধান পাকবে। এ সাঁকোর ওপর দিয়ে ধান আনা যাবে না। পাঁচ কিলোমিটার ঘুরে ধান আনতে অনেক খরচ হয়। শৌলমারী ৬ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাদেকুল ইসলাম বলেন, সেতু না থাকায় এ অঞ্চল অবহেলিত। বর্ষা এলে স্রোতে সাঁকোটি ভেঙে যাবে। তাই সেতু নির্মাণের জন্য আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী হারুন-অর-রশিদ বলেন, দীঘল নদীর ওপর সেতুর খুবই দরকার। আশা করি, দ্রুত এখানে সেতু নির্মাণ হবে।

Disconnect