ফনেটিক ইউনিজয়
লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ শহরবাসী
মঈন উদ্দীন বাপ্পী, রাঙামাটি

রাঙামাটিতে তীব্র লোডশেডিং ও ভাপসা গরমে চরম দুর্ভোগে পড়েছে বাসিন্দারা। লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়ে সাধারণ মানুষ ৩ মে মানববন্ধন করেছেন। কিন্তু বিদ্যুৎ বিভাগের এ ব্যাপারে কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই।
বিদ্যুতের নাজুক অবস্থা জানতে বিদ্যুৎ বিভাগের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারীর সাথে কথা বললে কেঁচো খুঁড়তে সাপ বের হয়ে আসে। যে গল্প অবিশ্বাস্য হলেও বাস্তব। তারা বলেন, বিভাগটিতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গ্রুপিং, বিভাগজুড়ে ঠিকাদারদের কঠিন সিন্ডিকেট ও গ্রুপিং, ঠিকাদারদের সাথে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যোগসাজশ থাকায় বিদ্যুতের এমন বেহাল দশা হচ্ছে। এসব অপকর্মের কারণে পুরো বিভাগের চিত্র বদলে গেছে।
এছাড়া বিভাগটির একজন কর্মকর্তার সাথে কয়েকজন সাংবাদিকের অর্থবাণিজ্য সম্পর্কের অভিযোগ রয়েছে। গণমাধ্যমকর্মীরা এ কর্মকর্তার সাথে সাক্ষাৎ করতে গেলে অনেক সময় সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নের সম্মুখীন, অ্যাক্রেডিটেশন পাস খোঁজা, তথ্য দিতে গড়িমসি করে কথিত সাংবাদিকদের প্রভাববলয় জাহির করার চেষ্টা চালান এ কর্মকর্তা। অতীতে অনেক গণমাধ্যমকর্মী বিভাগটির অনিয়ম, দুর্নীতি নিয়ে লেখার কারণে ওই কর্মকর্তা উকিল নোটিস পাঠনোর মতো নজির সৃষ্টি করেছেন।
এদিকে জেলার স্থানীয় বাসিন্দা কুদ্দুস জানান, সরকার বলছে, দেশে সর্বোচ্চ বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে, কিন্তু যে হারে রাঙামাটিতে লোডশেডিং হচ্ছে তাতে বিদ্যুৎ উৎপাদনের একফোঁটা চিত্র রাঙামাটিতে দেখতে পাচ্ছি না।
এ বিষয়ে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড বিতরণ বিভাগ রাঙামাটি শাখার নির্বাহী প্রকৌশলী সবুজ কান্তি মজুমদার জানান, লোডশেডিং নয়, লাইনের ত্রুটির কারণে বিদ্যুতের সমস্যা হচ্ছে। রাঙামাটিতে ভূমিধসের কারণে হাটহাজারী থেকে আসা লাইনটি বিছিন্ন রয়েছে। ঊধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে এবং বোর্ড সভায়ও একাধিকবার বিষয়টি সমস্যা সমাধানের জন্য বলা হয়েছে।

Disconnect