ফনেটিক ইউনিজয়
আমের রাজধানীতে ভারতীয় আম আমদানি নিষিদ্ধের দাবি
ফেরদৌস সিদ্দিকী, রাজশাহী

আর কয়েক সপ্তাহ পরই রাজশাহী অঞ্চলের বাজারে মিলবে আম। তবে এরই মধ্যে ভারতীয় বাহারি আম চলে এসেছে আমের রাজধানীতে। এখানকার ফল দোকানিরা পসরা সাজিয়ে বসেছেন ভিনদেশি আম নিয়ে।
বিক্রেতারা বলছেন, বাজারে ভারতীয় গোলাপখাস ও দিলশাদ আম প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৫০ টাকায়। আর বৈশাখীর দাম ১৮০-২০০ টাকা। বউ কথা কও বিক্রি হচ্ছে ১৫০-১৬০ টাকা কেজি দরে। মৌসুমের আগে আম পেয়ে ঝুঁকছেন ক্রেতারাও। ফলে বেশ চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে এসব আম।
অভিযোগ রয়েছে, এসব আমে মেশানো রয়েছে ক্ষতিকর কেমিক্যাল। আর কিনে নিয়ে গিয়ে বাসায় রাখতেই গায়ে ভেসে উঠছে কালো দাগ। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ভারতের অনেক রাজ্যে বৈশাখের শুরুতেই এসব আম পাকে। তাই মৌসুম শুরুর আগেই আম রফতানি করে দেশটি। এজন্য আম দীর্ঘদিন সংরক্ষণে প্রয়োজন হয় কেমিক্যাল মেশানোর। মাত্রাতিরিক্ত কেমিক্যাল মেশানো এসব আমে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকির আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরাও।
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. আজিজুল হক জানান, মাত্রাতিরিক্ত ফরমালিন থাকায় মানবদেহের জন্য এসব আম অত্যন্ত ক্ষতিকর। ফরমালিনের প্রভাবে মানবদেহের কিডনি ও লিভার নানা রোগে আক্রান্ত হতে পারে।
এদিকে রাজশাহীর বাজারে ভারতীয় আমের সহজলভ্যতা ভালো চোখে দেখছেন না স্থানীয় আম ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, এখনও দেশি আম পাকতে শুরু করেনি। তবে আম মৌসুম শুরুর পর এসব আম বাজারে থাকলে স্থানীয় চাষি ও ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। তাই মৌসুম শুরুর আগেই এসব আম আমদানি বন্ধের দাবি জানান তারা।

Disconnect