ফনেটিক ইউনিজয়
সেতু আছে, নেই সংযোগ সড়ক
নওশাদ রানা সানভী, টাঙ্গাইল

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলা মামুদনগর ইউনিয়নের পোস্ট কামারী রাস্তার ফরিদ সিকদারের বাড়ির কাছে ২০ ফুট সেতুটি কোনো উপকারে আসছে না। সেতুর দুই পাশে মাটি না থাকায় শুকনো কিংবা বর্ষা মৌসুমে সেতুর কোনো সুফল ভোগ করতে পারছে না এলাকাবাসী। ফলে চার গ্রামের জনসাধারণের গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে সেতুটি।
জানা যায়, সেতুটি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করে মেসার্স এমডি জিল্লুর রহমান  ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। সেতুটি ২০১৬ সালের ২৫ জুন সম্পন্ন করে সংযোগ সড়ক না করেই সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার চূড়ান্ত বিলসহ জামানত তুলে নেন বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা। এতে অবর্ণনীয় ভোগান্তিতে পড়ে জনসাধারণ।
এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, সেতুটি বর্তমানে এলাকার জনগণের কাছে একটি বিষফোঁড়ার মতো। এ নিয়ে যথাযথ কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার তাগিদ দেয়া হয়েছে। নতুন বরাদ্দ পেলে সেতুর দুই পাশের মাটি ভরাটের ব্যবস্থা নেয়া হবে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা বেগম শাহীন বলেন, প্রকল্পটি আমার পূর্ববর্তী কর্মকর্তার সময়ে হয়েছে। সংযোগ সড়কে মাটি ভরাটের বিষয়ে এরই মধ্যে অবগত হয়েছি। যত দ্রুত সম্ভব সেতুর দুই পাশে মাটি ভরাটের জন্য বরাদ্দ দেয়া হবে। ঠিকাদার আব্দুল খালেকের সাথে তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, সেতুটি নির্মাণের পর দুই পাশের সংযোগ সড়কে মাটি ভরাট করা হয়েছিল। এ সময় বর্ষার পানিতে মাটি ধুয়ে গেছে।

Disconnect