ফনেটিক ইউনিজয়
পর্যাপ্ত তিল উৎপাদন
জিয়াউস সাদাত, খুলনা

চলতি মৌসুমে খুলনার তিন উপজেলায় ১ হাজার ৭০০ হেক্টর জমিতে তিল আবাদ হয়, যার মূল্য প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা। প্রতিকূল আবহাওয়ার মধ্যেও খুলনায় তিলের বাম্পার ফলন হওয়ায় তিলচাষীদের মুখে হাসি ফুটেছে।
কৃষি দপ্তরের সূত্রমতে, এবার খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার ঘোনা, আটলিয়া ও জিলেরডাঙ্গা, বটিয়াঘাটা উপজেলার হাটবাটি, হোগলবুনিয়া, ধাদুয়া, করের ডোন, ভেন্নাবুনিয়া, শোলমারি, রাঙ্গেমারি, তেঁতুলতলা ও পুঁটিমারি এবং দাকোপের পানখালী গ্রামে তিল আবাদ হয়। মৌসুমের শুরুতেই আবহাওয়া ছিল প্রতিকূল। তবে বৈশাখের শুরুতে বৃষ্টি হওয়ায় তিল গাছ সতেজ হয়ে ওঠে। ফলন হয় আশাতীত।
বটিয়াঘাটা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. রবিউল ইসলাম জানান, এখানে ১ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে তিল আবাদ হয়েছে। বিঘাপ্রতি উৎপাদন ছিল গড়ে দুই মণ। বোরোর লোকসান তিলে পুষিয়ে গেছে। আঞ্চলিক  কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা ফয়েজ আহমেদ জানান, দাকোপ, ডুমুরিয়া ও ফুলতলায় ২ হাজার কোটি টাকার তিল উৎপাদন হয়েছে। খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা ও নড়াইল জেলায় ৪ হাজার ১০ হেক্টর জমিতে এবার তিল উৎপাদন হয়।

Disconnect