ফনেটিক ইউনিজয়
হাবিপ্রবির শিক্ষক বরখাস্ত
রাসেল ইসলাম, দিনাজপুর

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) যৌন নির্যাতনের ঘটনায় বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. রমজান আলীকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। গত ৩০ জুলাই সকাল ১০টায় ভাইস চ্যান্সেলর অনুমোদন দেয়ার পর রেজিস্ট্রার এ আদেশ জারি করেন।
যৌন নির্যাতনকারী তিন শিক্ষকের শাস্তির দাবি নিশ্চিত করতে ‘প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামে’র বেঁধে দেয়া সাতদিনের সময়ের পঞ্চম দিনে এ সাময়িক বরখাস্ত আদেশ প্রদান করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গত ২৬ জুলাই দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে সংবাদ মম্মেলন করে এ দাবি জানান ‘প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম’-এর নেতারা।
জানা যায়, হাবিপ্রবির বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. রমজান আলী, ফিশারিজ অনুষদের শিক্ষক মো. ফরিদুল্লাহ ও ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক দীপক কুমার সরকারের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির বিষয়ে লিখিত অভিযোগ রয়েছে।
এর মধ্যে সহকারী অধ্যাপক ড. রমজান আলীর বিরুদ্ধে রয়েছে তিনটি অভিযোগ। এর মধ্যে রয়েছে ছাত্রীকে মানসিক হয়রানি, ক্যাম্পাসে কাজের মহিলার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন ও রাজশাহী নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে তার স্ত্রীর যৌতুকের মামলা। এ নিয়ে বিশ^বিদ্যালয়ে গঠিত যৌন নির্যাতন সেল তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো সত্য বলে রিপোর্ট প্রদান করে। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, তা জানতে চেয়ে চিঠি দেয়। কিন্তু তার দেয়া উত্তরে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সন্তুষ্ট হতে পারেনি।
অন্যদিকে গত ৩০ জুলাই সকালে সাধারণ ছাত্রছাত্রীর ব্যানারে শিক্ষার্থীরা শিক্ষক রমজান আলীর বহিষ্কার চেয়ে ক্যাম্পাসে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে। এ কারণে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শিক্ষক রমজান আলীকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে।

Disconnect