ফনেটিক ইউনিজয়
মোহাজেরিনের চোখ দিয়ে রক্ত পড়ে
এইচ আলিম, বগুড়া

বগুড়ায় বিরল রোগে আক্রান্ত  বগুড়া পলিটেকনিক্যাল ইনস্টিটিউটের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী মোহাজেরিন। সে লেখাপড়ায় আগ্রহী। কিন্তু তার রয়েছে এক অজানা রোগ। আর এ রোগের কারণে তার পুরো পরিবার রয়েছে দুশ্চিন্তায় ও আর্থিক অনটনে। পরিবারের সদস্যরা বলছে, মোহাজেরিনের চোখ, নাক ও কান দিয়ে রক্ত পড়ে। রক্ত পড়ার সময় তার হাত, পা কাঁপে। প্রায় ১ মিনিট ধরে রক্ত পড়ার পর তা আবার বন্ধ হয়ে যায়।
তার বাবা মোতাহার হোসেন স্বর্ণ শিল্পের কাজ করেন। সামান্য আয় দিয়ে তিনি তিন মেয়ে ও এক ছেলের সংসার চালান। বগুড়া শহরে তার বাড়ি। স্ত্রী রোকেয়া বেগম গৃহিণী।
মোহাজেরিন খাতুনের মা রোকেয়া বেগম জানান, ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে প্রথম মোহাজেরিনের চোখ, নাক ও মুখ দিয়ে রক্ত আসে। রক্ত বের হওয়ার পরই সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। ডাক্তাররা তার কোনো রোগ ধরতে না পেরে আর চিকিৎসা দিতে চান না। বগুড়ার বিভিন্ন ডাক্তারকে দেখালে তারা হাজার হাজার টাকার পরীক্ষা করান, কিন্তু ভালো করতে পারেন না। কোনো ডাক্তার বলেন, তার টেনশন থেকে এমন হয়। কেউ আবার বলেন, রক্তের চাপ বেশি। কিন্তু তার রোগ ভালো হচ্ছে না। জমি, গরু বিক্রি করে চিকিৎসা করিয়েছেন। কিন্তু এখন আর তার চিকিৎসা ব্যয় তারা করতে পারছেন না। তার চিকিৎসার জন্য কমপক্ষে ৪ লাখ টাকা প্রয়োজন।

Disconnect