ফনেটিক ইউনিজয়
ভ্রমণপিপাসুদের আকর্ষণ পদ্মবিল
দুলাল বিশ্বাস, গোপালগঞ্জ

ফুলের রানী পদ্ম। দূর থেকে মনে হবে যেন ফুলের বিছানা পাতা। প্রাকৃতিকভাবে জন্ম নেয়া জলজ ফুলের রানী এ পদ্ম ফুল সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিয়েছে গোপালগঞ্জের চিত্র। প্রতিদিনই এ সৌন্দর্য উপভোগ করতে আসছে দর্শনার্থীরা। তার মধ্যে অন্যতম সদর উপজেলার খেলনা ও বলাকইড় বিল। জেলা সদর থেকে মাত্র ১২ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত খেলনা গ্রাম। খেলনার বুকজুড়ে বিশাল বিলের মাঝ দিয়ে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার রাস্তা আঁকাবাঁকা ডানা মেলে চলে গিয়েছে বলাকইড় গ্রামে। খেলনা গ্রামের এ রাস্তা দিয়ে যেতেই চোখে পড়বে পদ্ম ফুলের মেলা। ১৯৮৮ সালের পর থেকে বর্ষাকালে এ বিলের অধিকাংশ জমিতেই প্রাকৃতিকভাবে পদ্ম ফুল জন্মে। এ কারণে এখন বিলটি পদ্মবিল নামেই পরিচিত হয়ে উঠেছে। বর্ষা মৌসুমে চারদিকে শুধু পদ্ম আর পদ্ম।
বলাকইড় গ্রামের কৃষ্ণ চন্দ্র সরকার বলেন, হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা বিভিন্ন পূজা-পার্বণে পদ্ম ফুল ব্যবহার করে। তাই এলাকার শ্রমজীবী মানুষ ফুল বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করছে।
পর্যটকদের জন্য এরই মধ্যে রাস্তার পাশে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন দোকান। এখানে আছে ছোটবড় প্রায় ২০-২৫টি নৌকা। নৌকা ভ্রমণের জন্য নির্দিষ্ট কোনো ভাড়া না থাকলেও পর্যটকরা ভ্রমণ শেষে আমাদের খুশি হয়ে যা দেন, তাতেই আমরা মহাখুশি। এছাড়া পদ্ম ফুলের এ মেলার জন্য আমাদের গ্রামের কালাম ও মান্নু শেখের রয়েছে একটি পার্ক, বালুর মাঠ। রয়েছে একাধিক বড় ঘের, যেখানে রয়েছে মনোরম দৃশ্য পিকনিক কর্নার।
গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. মোকলেসুর রহমান সরকার বলেন, খেলনা ও বলাকইড় গ্রামের পদ্মবিলের পদ্ম ফুলকে কেন্দ্র করে পর্যটকদের জন্য এরই মধ্যে আমরা পাকা রাস্তা করে দিয়েছি এবং পর্যটকদের জন্য পাবলিক টয়েলেটের ব্যাবস্থাসহ নানা প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ চলছে।

Disconnect