ফনেটিক ইউনিজয়
উচ্চ শব্দে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী
জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জের অনেক উপজেলায় বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানির টাওয়ার চালানোর জন্য ব্যবহৃত জেনারেটরের শব্দ দূষণের শিকার এলাকাবাসী।
জানা যায়, গ্রামীণফোন, বাংলালিংক ও রবি টাওয়ার বসানো হয়েছে বিভিন্ন গ্রাম ও পাড়ার মধ্যখানে। প্রতিটি টাওয়ার চালাতে ব্যবহার করা হচ্ছে উচ্চশক্তির জেনারেটর। এ জেনারেটরগুলো স্থাপন করা হয়েছে বসতঘর ও খোলা স্থানে। প্রতিটি টাওয়ারেই রয়েছে তিনটি জেনারেটর আর তা থেকে উৎপন্ন হচ্ছে বিকট শব্দ। গত ১৫ বছর ধরে বাড়ির পাশে চলা এমন শব্দ দূষণের কারণে নানা ধরনের শ্রবণ সমস্যায় ভুগছেন টাওয়ার সংলগ্ন বাসিন্দারা। আর বিদ্যুৎ সংযোগ থাকলে কম শব্দ আর বিদ্যুৎ না থাকলে এসব টাওয়ারের উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন জেনারেটরের শব্দে অবর্ণনীয় দূর্ভোগে আছেন এলাকাবাসী। এখন উচ্চ শব্দের কারণে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে পাড়ার শিশুদের পড়ালেখার মনোযোগ, সব বাসিন্দারা ভুগছেন উচ্চ রক্তচাপ ও কানে কম শোনা রোগে। ঐ সব স্থানে জন্ম হচ্ছে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুর।
সরেজমিন জানা যায়, জেলার তাহিরপুর উপজেলার দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের রামসিংহপুর গ্রামের দাসপাড়া বিদ্যুৎ বিহীন রামসার সাইট হিসাবে অন্তর্ভুক্ত টাঙ্গুয়ার হাওরের দক্ষিণ পাড়ে অবস্থিত। একশত বর্গগজ আয়তনের দাসপাড়া গ্রামটিতে ২০টি পরিবারের বাস। পাড়ার লোকসংখ্যা দেড় শতাধিক। রামসিংহপুর ও দাসপাড়া বছরের ছয়মাস হাওরের দশফুট গভীর পানি দ্বারা বেষ্টিত থাকে। ১৫ বছর পূর্বেও এই পাড়াটি ছিল যান্ত্রিক শব্দবিহীন। এখন তাদের সবাই নানা ধরনের অসুখে ভুগছেন শব্দ দূষণের কারণে।
তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. ইকবাল হোসেন বলেন, মাত্রাতিরিক্ত শব্দ দূষণ মানবদেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক। এতে করে মাথা ব্যথা, কানে কম শোনা, উচ্চ রক্তচাপ ও স্ট্রোক হতে পারে। স্বাভাবিক শারীরিক প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হয়। শিশু, গর্ভবতী ও বৃদ্ধদের ক্ষেত্রে নানামুখী সমস্যা হতে পারে।

Disconnect