ফনেটিক ইউনিজয়
ঘুষের বিনিময়ে জমির টাকা
আল আমিন টিটু, ভৈরব

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে অচিরেই শুরু হবে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন বিসিকের মাটি ভরাটের কাজ। ফলে বিশাল কর্মযজ্ঞে সৃষ্টি হবে নতুন কর্মসংস্থানের, এমন স্বপ্ন বিভোর স্থানীয় লোকজন। কিন্তু এ বিসিকে জমি বিক্রেতারা এখনো পাননি তাদের পাওনা টাকা। আবার যারা টাকা পেয়েছেন, তাদেরকে দিতে হয়েছে মোটা অঙ্কের অগ্রিম ঘুষ।
জানা গেছে, দেশের ব্যবসা বাণিজ্যের কেন্দ্রবিন্দু বন্দরনগরী ভৈরব। তাছাড়া রাজধানী ঢাকার পরেই এ শহের গড়ে উঠেছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম পাদুকার বাজার। ফলে শহর থেকে মাত্র পাঁচ কিলোমিটারের ভেতরে ভৈরব-কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কের কালিকাপ্রসাদে বিসিক শিল্পনগরী প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এদিকে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মতে, কালিকাপ্রসাদে এক বিঘা সমান ৩৫ শতাংশ জমি। সে হিসেবে প্রতি বিঘার মূল্য প্রায় ৩৫ লাখ টাকা দর পড়ে। কিন্তু কোনো কৃষকই পায়নি বিসিক নির্ধারিত তাদের ভূমির সঠিক মূল্য পায়নি। তারা গড়ে প্রতিবিঘায় সর্বোচ্চ ৩০ লাখ টাকা পর্যন্ত মূল্য পেয়েছেন। যদিও টাকার চেক থেকে কাটা হয়নি একটি টাকা। সুকৌশলে চেক দেয়ার আগেই কৃষকদের কাছ থেকে অগ্রিম নেয়া হচ্ছে ঘুষের টাকা।
এ প্রসঙ্গে কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসক সারোয়ার মোর্শেদ চৌধুরী বলেন, অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই শুরু হবে বিসিক শিল্পনগরীর মাটি ভরাটের কাজ। তাছাড়া এরই মধ্যে ৯৫% কৃষকদের পাওনা টাকা বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। বাকিগুলো দ্রুত সময়ের মধ্যে দেওয়া হবে। তবে, তার আমলে ঘটনাটি না ঘটায় তিনি ভূমি অধিগ্রহণ শাখার দুর্নীতি প্রসঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি।

Disconnect