ফনেটিক ইউনিজয়
শেষ হলো আন্তর্জাতিক নাট্যোৎসব
সামসউদ্দীন চৌধুরী কালাম, পঞ্চগড়

‘মানবতার জন্য নাটক’ এই স্লোগানে পঞ্চগড়ে শেষ হলো সপ্তাহব্যাপী আন্তর্জাতিক নাট্যোৎসব। পঞ্চগড়ের নাট্য দল ভূমিজ এই উৎসবের আয়োজন করে। বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত ও নেপালের ৯টি নাট্যদল এই উৎসবে অংশ নিয়েছিল। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নাট্যোৎসবের উদ্বোধন করেন।
১০ অক্টোবর পঞ্চগড় সরকারি অডিটোরিয়ামে কলকাতার নীহারিকা নাট্যদল পরিবেশন করে শ্যামসুন্দর বসুর রচনা ও এবং অশীম কর্মকারের নির্দেশনায় ‘বিষয়ের বিষ’, ১১ অক্টোবর সম্বিত সাহার রচনা ও নির্দেশনায় দিনাজপুরের শিল্পনাট পরিবেশন করে ‘রক্ত গোলাপের ছবি’, ১২ অক্টোবর পুরু লামসালের রচনা ও নির্দেশনায় নেপালের নাট্যদল আদিত্যাদি পরিবেশন করে ‘নাওগেডি’, ১৩ অক্টোবর সরকার হায়দারের রচনা ও নির্দেশনায় ভূমিজ পরিবেশন করে ‘শাহনাজ’, ১৪ অক্টোবর শিলিগুড়ির প্যাশেয়েনেট পারফরমার্স অমিতাভ কাঞ্জিলালের নির্দেশনায় পরিবেশন করে গিরিশ কার্নাডের ‘তুঘলক’, ১৫ অক্টোবর ঢাকার শব্দ নাট্যচর্চা কেন্দ্র পরিবেশন করে রওশন জান্নাত রুশনীর রচনা ও দেবাশীষ ঘোষের নির্দেশনায় ‘বীরাঙ্গনার বয়ান’ একই দিনে পঞ্চগড়ের নাট্যদল দিশারী নাট্যগোষ্ঠী পরিবেশন করে রফিকুল ইসলামের নির্দেশনায় সেলিম আলদীনের নাটক ‘বাসন’, ১৬ অক্টোবর পরিবেশিত হয় আশিষ খন্দকারের রচনা ও নির্দেশনায় ঢাকার নাট্যদল স্পেস এন্ড অ্যাকটিং রিসার্চ সেন্টারের নাটক ‘দুই আগুন্তক ভার্সেস একটি করবী ফুল’।
নাট্য উৎসব পরিচালনা কমিটির আহবায়ক আবু তোয়াবুর রহমান বলেন, উত্তরাঞ্চলে আন্তর্জাতিক পরিসরে এটাই প্রথম নাট্য উৎসব। বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর থেকে ভারত, নেপাল ও ভুটানের দুরত্ব কম। এ দেশগুলোর সাথে সাংস্কৃতিক মেলবন্ধন সৃষ্টির লক্ষ্যে ভূমিজ এ নাট্য উৎসবের আয়োজন করেছে।

Disconnect