ফনেটিক ইউনিজয়
আলট্রাসনোগ্রাম মেশিন বিকল
রাসেল ইসলাম, দিনাজপুর

দিনাজপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে তিন মাস ধরে বিকল হয়ে পড়ে আছে আলট্রাসনোগ্রাম মেশিন। ফলে ফিরে  যেতে বাধ্য হচ্ছেন আলট্রাসনোগ্রাম করাতে আসা রোগীরা। সমস্যা দেখা দিয়েছে ভর্তি রোগীদের চিকিৎসাতেও।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এ হাসপাতালে  ১১০ থেকে ২১০ টাকায় যে  আলট্রাসনোগ্রাম হয় তা বাইরে থেকে করতে লাগে ৯০০ টাকা। এ হাসপাতালের আলট্রাসনোগ্রাফি ডা. নিখিলেশ^র রায়। তিনি একজন দক্ষ ব্যক্তি। প্রতিদিন প্রায় ৫০ জন রোগীর আলট্রাসনোগ্রাম করে থাকেন তিনি। কিন্তু গত ২৫ জুলাই আলট্রাসনোগ্রাম মেশিনটি সম্পনূর্ণরুপে বিকল হয়ে যায়। সেই থেকে চলছে চিঠি চালাচালি। কিন্তু নতুন মেশিন পাওয়া যাচ্ছে না। এ কারণে তিন মাস ধরে বিকল হয়ে পড়ে রয়েছে এ মেশিনটি। ফলে রোগীদেরকে বাইরে থেকে আলট্রাসনোগ্রাম করতে হচ্ছে।
আলট্রাসনগ্রাম ও এক্স-রে বিভাগের একজন টেকনিশিয়ান জানান, স্বল্প খরচে রোগীরা আলট্রাসনোগ্রাম করতে পারত এখানে। কিন্তু এখন তাদেরকে বাইরে থেকে আলট্রাসনোগ্রাম করতে হচ্ছে। এতে রোগীরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। নতুন মেশিনের জন্য এ পর্যন্ত সাতটি চিঠি সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে। কিন্তু কোন সুফল পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুছ বলেন, খুব অল্প সময়ের মধ্যে নতুন মেশিন পাওয়া যাবে। হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আহাদ আলী এ কারণে ঢাকায় আবস্থান করছেন।

Disconnect