ফনেটিক ইউনিজয়
দখলদারদের কবলে চুয়াডাঙ্গা
রিফাত রহমান, চুয়াডাঙ্গা

দখলদারদের কবলে গোটা চুয়াডাঙ্গা শহর। চলাচলের সুবিধার্থে সড়ক সম্প্রসারণ করা হলেও দখলদারদের কারণে তা সংকুচিত হয়ে গেছে। সড়ক বিভাগ ও পৌরসভার জমিতে অবৈধ ব্যবসা গড়ে তোলা এবং সড়কের ওপর যেখানে সেখানে মোটরযান রাখার কারণে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।  
সরেজমিন দেখা গেছে, জেলা কারাগারের ডানপাশে পৌরসভার ড্রেন সীমানা পেরিয়ে সড়কের ধারে গড়ে তোলা হয়েছে দোকানপাট। এলজিইডি কার্যালয়ের অপর পাশে সড়ক বিভাগের জায়গা দখল করে কয়েকজন অসাধু ব্যক্তি ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। ওখানে পরিবেশ দূষণ করে কয়েকজন কসাই প্রতি সপ্তাহে পৌরসভার অনুমতি না নিয়ে গরু ছাগল জবাই করছেন। পশুর বর্জ্য সেখানেই ফেলছেন তারা। জেলা পরিষদের পাশেও সড়ক বিভাগের জমি দখল করে ব্যবসা চালাচ্ছেন কয়েকজন। পুরনো কাস্টমস কার্যালয়ের অপর পাশে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা একটি মোটরসাইকেল গ্যারেজে প্রায় সারাদিন মোটরসাইকেল ধোয়ামোছা কাজ করার কারণে সেখানকার ব্যবহৃত পানি জমে সড়ক নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। কোর্ট এলাকায় যাত্রীবাহী বাস কাউন্টার বসানো হয়েছে। পুরনো জেলা কারাগারের পশ্চিমপাশ দখল করে ব্যবসা চলছে।
রেলস্টেশনের কাছে সড়ক দখল করে গড়ে উঠেছে মাছ বিক্রির আড়ৎ। পৌরসভার বাস টার্মিনাল থাকা সত্ত্বেও শহরের বড়বাজারের কাউন্টার হতে চুয়াডাঙ্গা থেকে দিনরাত ঢাকাগামী পরিবহন ছেড়ে যাচ্ছে।
এ বিষয়ে সড়ক ও জনপথ এর নির্বাহী প্রকৌশলী জিয়াউল হায়দার বলেন, এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য গোটা জেলায় অবৈধ স্থাপনার তালিকা তৈরির কাজ চলছে। তাছাড়া সড়ক ও জনপথের জমি মাপার কাজ অব্যাহত আছে। এগুলো হয়ে গেলে অবৈধ স্থাপনা সরানোর কাজ শুরু হবে।

Disconnect