আগামী সপ্তাহ থেকে নতুন সড়ক পরিবহন আইন প্রয়োগ: ডিএমপি

ছবি: ডিএমপি নিউজ

ছবি: ডিএমপি নিউজ

ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম বলেছেন, আগামী সপ্তাহ থেকে নতুন সড়ক পরিবহন আইন প্রয়োগ করা হবে। 

তিনি বলেন, ‘সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর কথা মতে আমরা এক সপ্তাহ নতুন সড়ক পরিবহন আইনে মামলা করছি না। এছাড়া আইনটি প্রয়োগের আগে আমরা কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি।’ 

ট্রাফিক আইন নিয়ে কেউ সুবিধা নিতে চাইলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’ নিয়ে আজ সোমবার সকালে মিডিয়া ব্রিফিংকালে তিনি একথা বলেন।

আইন প্রয়োগের আগে জনসাধারণকে সচেতন করা হচ্ছে জানিয়ে কমিশনার বলেন, বাস টার্মিনাল ও গুরুত্বপূর্ণ ইন্টারসেকশনে সচেতনতামূলক মাইকিং করা হচ্ছে, পরিবহন মালিক শ্রমিকদের একত্রে করে তাদেরকে এই আইন সম্পর্কে ধারণা দেয়া হচ্ছে। এছাড়া দেয়া হচ্ছে সচেতনতামূলক লিফলেট। বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকা ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে সড়ক পরিবহন আইন সম্পর্কে নিয়মিত বিভিন্ন ফিচার প্রকাশ করা হচ্ছে। 

তিনি বলেন, ‘ট্রাফিক পুলিশের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে মামলা-জরিমানার নতুন পদ্ধতি কার্যকর করা হবে।’ 

তিনি আরো বলেন, ‘নতুন আইনে সাজা বাড়ানো হয়েছে। সাজার ভয়ে আইন মানবে মানুষ। চালকদের পয়েন্ট সিস্টেম রাখা হয়েছে। চালকদের পয়েন্ট কমতে থাকলে একটা পর্যায়ে লাইসেন্স বাতিল হয়ে যাবে। সেই চালক আর পরে লাইসেন্স নিতে পারবেন না।’

শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আইন পুরোদমে বাস্তবায়ন শুরু হলে সড়কের ট্রাফিক শৃঙ্খলা ফিরে আসবে। সব মামলা সার্ভারে জমা হবে। ট্রাফিকের কেউ আইন অমান্য করলে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রথমবার কেউ অমান্য করলে অল্প জরিমানা করা হবে। পরেরবার তাকে আর ছাড় দেয়া হবে না। মামলা করার সঙ্গে সঙ্গে তাকে লিফলেটও দেয়া হবে।’ 

তিনি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় ক্ষতিপূরণ ও যাত্রীদের বীমার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ড্রাইভিং স্কুলের মাধ্যমে চালকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে এই আইনে। এছাড়াও সড়ক দুর্ঘটনায় কেউ নিহত হলে সর্বোচ্চ ৫ বছরের কারাদণ্ড ও ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সেইসঙ্গে কিছু কিছু অপরাধের কারণে বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তারের বিধান রয়েছে এই আইনে।

এক প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, যেসব সড়কে ফুটওভার ব্রিজ নেই সেখানে পথচারীদের সড়ক পারাপারে সহযোগিতা করবে ট্রাফিক পুলিশ। আর যেসব সড়কের ফুটওভার ব্রিজ আছে সেখানে ব্রিজ ব্যবহার না করা হলে পথচারীদের শাস্তি দেয়া হবে।

মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh