ফনেটিক ইউনিজয়
বারী সিদ্দিকী স্মরণে...
এনআই বুলবুল

বারী সিদ্দিকী। বাংলাদেশের একজন খ্যাতিমান সংগীতশিল্পী ও বংশীবাদক। তিনি মূলত লোকগীতি ও আধ্যাত্মিক ধারার গানের জন্য জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। তাঁর গাওয়া ‘শুয়া চান পাখি’, ‘আমি একটা জিন্দা লাশ’, ‘আমার গায়ে যত দুঃখ সয়’, ‘সাড়ে তিন হাত কবর’, ‘তুমি থাকো কারাগারে’সহ অনেক গান শ্রোতাদের মুখে মুখে শোনা যায়। গত ২৩ নভেম্বর দিবাগত রাতে এই সংগীতশিল্পী মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর। তাঁর মৃত্যুতে সংগীতাঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে আসে। তাঁকে নিয়ে সহকর্মীরাও  ম্মৃতিচারণা করেন...

আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল
(সংগীত পরিচালক)

বারী সিদ্দিকীর মৃত্যুতে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল গভীর শোক প্রকাশ করেন। একটি স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন : ‘হে খোদা, তুমি আদরে আদরে রাখিও মোদের শুয়া চান পাখিটারে...আমিন।’ তিনি আরও বলেন, বারী সিদ্দিকী আজীবন আমাদের অন্তরে আদরে আদরে থাকবেন। গানের এই শোয়া চান পাখি সবার হৃদয়ে ভালোবাসার বাসা বেঁধেছেন। সংগীতের এই পাখির চলে যাওয়া মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে। তবু সত্যকে স্বীকার করতে হবে তিনি আর আমাদের মাঝে নেই। তবে বারী সিদ্দিকী অবশ্যই তাঁর গানের মধ্য দিয়েই বেঁচে থাকবেন।

আসিফ আকবর
(সংগীতশিল্পী )

বারী ভাই বয়সে আমার চেয়ে বড় ছিলেন। কিন্তু আমাদের দুজনের সম্পর্ক ছিল বন্ধুতার। দুজনে একসঙ্গে অনেক কাজ করেছি। তাঁর সঙ্গে আমার অনেক স্মৃতি রয়েছে। সেই দিনগুলো ভুলে থাকার মতো না। বারী ভাইয়ের কারও সঙ্গে মনোমালিন্য ছিল না। ব্যক্তি হিসেবেও তিনি অসাধারণ ছিলেন। শিগগিরই বারী ভাইকে নিয়ে আমি নিজেই লিখব। বারী ভাইয়ের আত্মার শান্তি কামনা করছি।

কিরণ চন্দ্র রায়
(সংগীতশিল্পী)

আমরা একসঙ্গে প্রায় ১৮ বছর কাজ করেছি। বারী সিদ্দিকীর  শুদ্ধ সংগীতের প্রতি শ্রদ্ধা ছিল আজন্মকালের। বারী সিদ্দিকী নিঃসন্দেহে একজন বড় মাপের শিল্পী। বাঁশিতে এবং গায়ক হিসেবে তিনি শ্রোতাদের মন জয় করেন। আমার সঙ্গে তাঁর কত স্মৃতি, বলে বোঝানো যাবে না। তাঁর অকালে চলে যাওয়ায় অপূরণীয় ক্ষতি নেমে এসেছে আমাদের সংগীতাঙ্গনে।

শহীদুল্লাহ ফরায়জি
(গীতিকার)

বারী সিদ্দিকী ভিন্ন ধারার বাংলা গানের প্রচলন করেন। তাঁর কণ্ঠ, সুর আর গায়কিতে রয়েছে ভিন্নতা। আর তা সবাই গ্রহণ করেছেন। এই ভিন্ন ধারা গানের জন্য বারী সিদ্দিকী বাংলা গানের জগতে বেঁচে থাকবেন। আমি বিশ্বাস করি, বারী সিদ্দিকীর গানগুলোও শ্রোতাদের মুখে মুখে থাকবে। কখনো হারিয়ে যাবে না।

এন্ড্রু কিশোর
(সংগীতশিল্পী)

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে বারী সিদ্দিকীর জন্য দোয়া প্রার্থনা করেন। তিনি লেখেন : ‘বারী সিদ্দিকী চলে গেলেন না-ফেরার দেশে। সবাই তাঁর জন্য দোয়া করবেন, আল্লাহ  যেন তাঁকে বেহেশত নসিব করেন আমিন।’ এই সংগীতশিল্পী আরও বলেন, বারী সিদ্দিকীর মৃত্যুতে আমাদের অপূরণীয় শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে। তিনি সবার প্রিয় ছিলেন। এভাবে তাঁর চলে যাওয়া সত্যিই আমাদের জন্য অনেক কষ্টকর।

আইয়ুব বাচ্চু
(ব্যান্ড তারকা)

না-ফেরার দেশে চলে যাওয়ার মিছিলে গেলেন আমাদের ভীষণ প্রিয় সম্পদ বারী সিদ্দিকী ভাই। মহান আল্লাহ তাঁকে বেহেশত নসিব করুন। বারী ভাই আমাদের দেশের সম্পদ। আমরা সেই সম্পদ হারিয়েছি। তবে তিনি আমাদের অন্তরে আজীবন বেঁচে থাকবেন। তিনি একজন বংশীবাদক হিসেবে যেমন নৈপুণ্য দেখিয়েছেন, তেমনি শিল্পী হিসেবেও অসাধারণ। বারী ভাই যেখানেই থাকুন আপনার আত্মার শান্তি কামনা করছি।

মনির খান
(কণ্ঠশিল্পী)

বারী সিদ্দিকী বাংলা সংগীতের ঐতিহ্যের সঙ্গে জড়িত। বাংলা লোকগানে তিনি যে ধারা দেখিয়েছেন, সত্যি সবাই মুগ্ধ। আমার সৌভাগ্য হয়েছে বারী ভাইয়ের সুরে কেয়ামত শীর্ষক একটি অ্যালবাম করার। তাঁর সঙ্গে না মিশলে হয়তো জানা হতো না তিনি কতটা গুণের অধিকারী। একজন বংশীবাদ ও সংগীতশিল্পী হিসেবে তাঁর কৃতিত্ব কখনো ভুলে যাওয়ার মতো নয়। তাঁর চলে যাওয়া সংগীতাঙ্গনে বড় শূন্যতা তৈরি হয়েছে বলে মনে করি।

Disconnect