ফনেটিক ইউনিজয়
অ্যাভেঞ্জার্স : ইনফিনিটি ওয়ার
সব রেকর্ড ভেঙে তছনছ
বিনোদন প্রতিবেদক

পৃথিবীকে বাঁচাতে হবে ভয়ঙ্কর এক শত্রুর হাত থেকে। তাই একসঙ্গে অভিযানে নেমেছে মার্ভেল কমিকসের সব সুপারহিরো। আয়রনম্যান থেকে শুরু করে ক্যাপ্টেন আমেরিকা, হাল্ক, থর, ডক্টর স্ট্রেঞ্জ, স্পাইডার-ম্যান, ব্ল্যাক উইডো, উইন্টার সোলজার, ব্ল্যাক প্যান্থার, গার্ডিয়ানস অব দ্য গ্যালাক্সি বাহিনী; কে নেই! ‘অ্যাভেঞ্জার্স : ইনফিনিটি ওয়ার’ নামের এ ছবিতে দেখা গেছে দুনিয়ার সব বাঘা তারকাকে। এ দৃশ্য নজিরবিহীন। তাই মার্ভেল কমিসকের সুপারহিরোদের সমাহারে তৈরি চলচ্চিত্রটিকে নিয়ে শোরগোল চলছিল ছবিটি মুক্তির অনেক আগে থেকেই। প্রেক্ষাগৃহগুলোয় অগ্রিম টিকিটের জন্যও ভিড় জমে মুক্তির বেশ কয়েক সপ্তাহ আগে থেকেই। বিশেষ করে ভক্তরা ছবিটি দেখার জন্য উন্মুখ হয়ে ছিল।
অবশেষে  গত ২৭ এপ্রিল মুক্তি পায় ‘অ্যাভেঞ্জার্স : ইনফিনিটি ওয়ার’। আর মুক্তির প্রথম তিনদিনে ও বিশ্বব্যাপী সর্বকালের সবচেয়ে বেশি আয়ের দুটি রেকর্ড এখন এ ছবির দখলে। বক্স অফিসের নতুন চ্যাম্পিয়ন এখন মার্ভেল কমিকসের এ সুপারহিরোরা। আমেরিকা, কানাডাসহ তামাম দুনিয়ায় ঝড় তুলে সর্বকালের সব রেকর্ড তছনছ করে দিয়েছে ‘অ্যাভেঞ্জার্স : ইনফিনিটি ওয়ার’।
অ্যাভেঞ্জার্স সদস্যরা আসবে আর বক্স অফিসে হুলস্থূল বাধবে না, তা কী করে হয়! ছবিটির ট্রেইলারেই তো হুমড়ি খেয়ে পড়েছিল দর্শকর। রেকর্ড ভাঙার কাজ শুরু সেখান থেকেই। এরপর আগাম টিকিট বিক্রির রেকর্ড তো ছিলই। আর এখন ছবিটি নিয়ে সবার প্রত্যাশাও ছাড়িয়েছে অনেক অনেক গুণ।  
বক্স অফিস মোজো ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, চীন ছাড়াই বিশ্বব্যাপী ৬৩ কোটি ডলার আয় করে ফেলেছে ‘অ্যাভেঞ্জার্স : ইনফিনিটি ওয়ার’, বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ৫ হাজার ৩৩৬ কোটি ৭৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা। এটাই যেকোনো ছবির বেলায় তিনদিনের সর্বকালের সর্বোচ্চ আয়।
অ্যাভেঞ্জার্স : ইনফিনিটি ওয়ার চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য লিখেছেন ক্রিস্টোফার মার্কাস ও স্টিফেন ম্যাকফিলি। ছবিটি পরিচালনা করেছেন দুই ভাই জো রুশো ও অ্যান্থনি রুশো। এর আগে এ সিরিজের আরও দুটি ছবি মুক্তি পেয়েছিল ২০১২ (দি অ্যাভেঞ্জার্স) ও ২০১৫ (অ্যাভেঞ্জার্স : এজ অব আলট্রন) সালে। সে ছবি দুটি যথাক্রমে ১৫০ ও ১৪০ কোটি মার্কিন ডলার আয় করেছিল। এ বছর ৩০-৪০ কোটি ডলার বাজেটের অ্যাভেঞ্জার্স : ইনফিনিটি ওয়ারে অভিনয় করেছেন রবার্ট ডাউনি জুনিয়র (আয়রন ম্যান), ক্রিস হেমসওর্থ (থর), ক্রিস ইভান্স (ক্যাপ্টেন আমেরিকা), স্কারলেট  জোহানসন (ব্ল্যাক উইডো), চ্যাডউইক বোসম্যান (ব্ল্যাক প্যান্থার), ক্রিস প্রাট (স্টার লর্ড), বেনেডিক্ট কাম্বারব্যাচ (ডক্টর স্ট্রেঞ্জ), মার্ক রাফেলো (হাল্ক), টম হল্যান্ড (স্পাইডার-ম্যান), টম হিডেলস্টন (লকি), সেবাস্তিয়ান স্তান (হোয়াইট উলফ) প্রমুখ। এছাড়া কম্পিউটারে সাজানো থানোসের ভূমিকায় জশ ব্রোলিন, রকেট চরিত্রে ব্র্যাডলি কুপার ও গ্রুটের ভূমিকায় কণ্ঠ দিয়েছেন ভিন ডিজেল।

Disconnect