ফনেটিক ইউনিজয়
বাবাকে নিয়ে চলচ্চিত্র
মান্নাফ সৈকত

প্রতিটি দিন হওয়া উচিত বাবা-মায়ের জন্য। কিন্তু প্রতিদিন ঘটা করে বাবার জন্য সুন্দর সময় উদযাপন করা হয় না বলে বেছে নেয়া হয়েছে একটি বিশেষ দিনকে। ১৭ জুন বাবা দিবস। তাই এবারের আয়োজন বাবা চরিত্রকে প্রাধান্য দিয়ে বিভিন্ন সময়ে নির্মিত চলচ্চিত্রের উপস্থাপন-

বাবা কেন চাকর
ঢাকাই চলচ্চিত্রে বাবাকেন্দ্রিক ছবির সংখ্যা কম নয়। তবে সবচেয়ে আলোচিত ও দর্শকনন্দিত ছবি ‘বাবা কেন চাকর’। এখানে আদর্শবাদী ও বৃদ্ধ বয়সে সন্তান দ্বারা নিপীড়িত বাবার চরিত্রে অভিনয় করেন নায়করাজ রাজ্জাক। ১৯৯৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবিটি ব্যবসাসফল হয়। ছবিটির পরিচালকও ছিলেন রাজ্জাক।

বাবা নিয়ে বাংলাদেশে প্রথম ছবি
কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘দ্য ফাদার’ হচ্ছে বাংলাদেশী চলচ্চিত্রে বাবাকে নিয়ে নির্মিত প্রথম ছবি। ১৯৭৯ সালে ছবিটি মুক্তি পায়। এটি তার পরিচালিত প্রথম ছবি। এতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন জন নেপিয়ার এডামস। এছাড়া অভিনয় করেছেন বুলবুল আহমেদ, সুচরিতা। সুপারহিট এ ছবিতে হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের বিখ্যাত ‘আয় খুকু আয়’ গানটি ব্যবহার করা হয়।

বাংলা চলচ্চিত্রে বাবাকে নিয়ে সিনেমার সংখ্যা কম হলেও বেশকিছু ছবি নির্মিত হয়েছে হলিউডে। এর মধ্যে রয়েছে-

লাইফ ইজ বিউটিফুল
ঘটনাটি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের। ইতালিতে ফ্যাসিস্ট বাহিনীর কনসেনট্রেশন ক্যাম্পে বন্দি বাবা ও ছেলে। রবার্তো বেনিগনি এ ছবিতে নিজের শৈশবের ঘটনাই বর্ণনা করেছেন। ছবিটিতে তার বাবার স্মৃতিচারণ করেছেন। অভিনয় করেছেন বাবার চরিত্রেই।

বিগ ফিশ
বিগ ফিশ ছবিটি নির্মিত হয় ২০০৩ সালে। ছবিটিতে বাবার ভূমিকায় অভিনয় করেন ইয়ান ম্যাকগ্রেগর ও ছেলের ভূমিকায় অভিনয় করেন বিলি ক্রুডুপ।

ফাদার অব দ্য ব্রাইড
ছবিটি ১৯৫০ সালে মুক্তি পায়। এতে বাবার ভূমিকায় অভিনয় করেন স্পেন্সার ট্রেসি ও মেয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেন এলিজাবেথ টেলর।

ম্যানচেস্টার বাই দ্য সি
‘ম্যানচেস্টার বাই দ্য সি’ ২০১৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত হলিউড সিনেমা। ছবিটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন কেনেথ লোনারম্যান।

ফাদারস ডে
১৯৯৯ সালের ৯ মে মুক্তি পায় হলিউড সিনেমা ‘ফাদারস ডে’। ইভান রেইটম্যানের পরিচালনার ছবিতে অভিনয় করেম রবিন উইলিয়ামস, বিলি ক্রিস্টাল, নাতাশা কিনস্কির মতো হলিউড তারকারা।

Disconnect