ডাবের পানির যত গুণ

ছবি: ইন্টারনেট।

ছবি: ইন্টারনেট।

ডাবের পানি শুধু যে মনে শান্তি আনে তা নয়। শরীর ভালো রাখতেও সাহায্য করে। এতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন, মিনারেলস, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ ও আরো পুষ্টি গুণ। ডাবের পানি ত্বক ও চুল ভালো রাখতেও কার্যকরী।

জেনে নিন ডাবের পানির উপকারিতা সম্পর্কে:  

পানির ভারসাম্য বজায় রাখা

ডাবের পানি শরীরে পানির ভারসাম্য বজায় রাখে। অনেক সময় অতিরিক্ত তেল-মশলা, ঠান্ডা ও কোমল পানীয়- এ সব আমাদের শরীরে পানির চাহিদা বাড়ায়। ডাবের পানি পান করলে দেহে পানির চাহিদা পূরণ হয় এবং শরীর সুস্থ থাকে। তাই ক্ষতিকর খাবারের বদলে ডায়েটে ডাবের পানি রাখুন।   

খনিজের অভাব দূর

ডাবের পানিতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, সোডিয়াম রয়েছে। তাই ডাবের পানি পান করলে সেসব অভাব পূরণ হয়। প্রতিদিন এই ডাবের পানি ডায়েটে রাখলে শরীরে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতাও বাড়ে। পটাশিয়াম থাকায় ডায়ারিয়া রুখতে এই পানি সাহায্য করে।

ক্লান্তি দূর

ডাবের পানি প্রাকৃতিক ভাবেই স্যালাইনের কাজ করে। ক্লান্তি কমাতে, শরীরকে ঠান্ডা রাখতে খুব উপকারি এই পানি। সমুদ্র উপকূলে বা রোদে যাঁরা কাজ করেন তাঁরা দিনে দু’-তিনটি ডাবও খেতে পারেন। 

হজমে সাহায্য 

ডাবের পানিতে বেশ কিছু উপকারি উৎসেচক থাকায় তা হজমে সাহায্য করে।  অনেকেরই ভারি কিছু খাওয়ার পর ঠান্ডা কোমল পানীয় বা সফট ড্রিংস খাওয়ার অভ্যাস আছে। সে অভ্যাস বাদ দিয়ে ডাবের পানি পান করলে সুস্থ থাকতে পারবেন। 

ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি

ডাবের পানিতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বককে ভেতর থেকে তরতাজা রাখে। নিয়মিত ডাবের পানি পান করলে ধীরে ধীরে ত্বক উজ্জ্বল হয়।

ময়েশ্চারাইজার হিসেবে

ডাবের পানি ত্বককে উজ্জ্বল করার পাশাপাশি প্রাকৃতিক ময়েশচারের কাজ করে। এর পাশাপাশি ত্বক তৈলাক্ত হলে ত্বকের অতিরিক্ত তেলকে দূর করে, এবং স্কিনকে ময়েশচারাইজড করে। 

প্রাকৃতিক টোনার হিসেবে

ডাবের পানি প্রাকৃতিক টোনার হিসাবে কাজ করে। এটি স্কিনে পিগমেনটেশন, ব্লেমিসেস দূর করে। স্কিনের অন্যান্য সমস্যা বা ইনফেকশনের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে ডাবের পানি। এটি স্কিনের ইনফেকশন কমায়। কারণ এতে আছে অ্যান্টিফাঙ্গাল ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ।

মন্তব্য করুন

সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার

© 2019 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh