প্রথমবারের মতো শুরু ম্যালেরিয়ার টিকা কর্মসূচি

ম্যালেরিয়ার টিকা। ছবি: সংগৃহীত

ম্যালেরিয়ার টিকা। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বে প্রথমবারের মতো ম্যালেরিয়ার টিকা আবিষ্কৃত হওয়ার পর শিশুদের টিকাদান কর্মসূচিতে তা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই টিকা পৃথিবীজুড়ে লাখ লাখ মানুষের জীবন রক্ষা করবে বলে আশা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিওএইচও)।

বিবিসির খবরে জানানো হয়, শুক্রবার আফ্রিকার দেশ কেনিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলের শিশুদের এই টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। 

প্রায় ৩০ বছর ধরে বিজ্ঞানীদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফল এই টিকা। ‘আরটিএস,এস’ নামের এ টিকা শরীরের প্রাকৃতিক প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করে ম্যালেরিয়ার জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সাহায্য করবে। প্রতিটি শিশুকে চার ভাগে (ডোজ) এই টিকা দেওয়া হবে এবং অবশ্যই শিশুর দুই বছর বয়স হওয়ার আগে চতুর্থ ডোজ গ্রহণ করতে হবে।

এ বিষয়ে ডব্লিউএইচও জানিয়েছিল, পরপর তিন মাসে তিন ডোজ এবং ১৮ মাস পর চতুর্থ ডোজ।

গবেষকদের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, পরীক্ষায় টিকা গ্রহণের ফলে ১০টি শিশুর মধ্যে চারজনের শরীরে ম্যালেরিয়া প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে উঠার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এছাড়া পরীক্ষাগারে দেখা গেছে, মারাত্মক ম্যালেরিয়া প্রতিরোধের ক্ষেত্রেও এই টিকা একতৃতীয়াংশ সফল।

বিজ্ঞানীদের আশা, এই টিকা ম্যালেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে শাক্তিশালী হাতিয়ার হবে।

প্রতি বছর এখনো বিশ্বের ২০ কোটির বেশি মানুষ মশাবাহিত রোগ ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে থাকেন, বেশির ভাগ সময় যার শিকার হয় শিশুরা। 

আগামী তিন বছরের মধ্যে কেনিয়ার তিন লাখের বেশি শিশুকে ম্যালেরিয়ার টিকা দেওয়া হবে। আফ্রিকায় এখনো ম্যালেরিয়া এক বিরাট আতঙ্কের নাম। ম্যালেরিয়াতে গোটা পৃথিবীতে প্রতি বছর যত মানুষ মারা যায়, তার অর্ধেকই মারা যায় আফ্রিকা অঞ্চলের পাঁচটি দেশে।

মন্তব্য করুন

সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার

© 2019 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh