কুমার শানুর সঙ্গে একই মঞ্চে সম্মাননায় ভূষিত আঁখি আলমগীর

ছবি: আঁখি আলমগীরের সৌজন্যে

ছবি: আঁখি আলমগীরের সৌজন্যে

উপমহাদেশের প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী কুমার শানু ও বাংলাদেশের সঙ্গীতাঙ্গনের গর্ব আঁখি আলমগীরকে একই মঞ্চে সম্মানা প্রদান করা হয়েছে। 

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার কামালগাজী নেতাজী স্পোর্টস কমপ্লেক্সে গত শুক্রবার অনুষ্ঠিত হলো ‘বিজয়া সম্মিলনী ২০১৯’। 

অনুষ্ঠানে কুমার শানু ও আঁখিকে উত্তরীয় পড়িয়ে দেবার পাশাপাশি ফুলেল শুভেচ্ছা, তাদের পোট্রেট ও সম্মানা ক্রেস্ট প্রদান করেন কলকাতার এমপি শুভাশীষ চক্রবর্তী ও এমএলএ ফেরদৌসী বেগম। 

সেখানে ৩০ হাজারেরও বেশি দর্শকের সামনে বাংলাদেশের হয়ে এই সম্মাননা কুমার শানুর সঙ্গে একই মঞ্চে গ্রহণ করাকে আঁখি তাঁর সঙ্গীত জীবনের এক অবিস্মরনীয় মুহুর্ত বলে আখ্যায়িত করেছেন। 


মুঠোফোনে কলকাতা থেকে আঁখি বলেন,‘ কলকাতার মাটিতে আমাকে হাজার হাজার দর্শকের সামনে আমাকে যে সম্মাননা প্রদান করা হলো, আমাকে যেভাবে সম্মানিত করা হলো তাতে আমি সত্যিই ভাষাহীন হয়ে পড়েছিলাম। তাদের সেই ভালোবাসার কাছে, সম্মানের কাছে আমি ঋণী হয়ে গেলোম। তাদের শ্রদ্ধা, ভালোবাসাকে আমি আন্তরিক ভাবে কৃতজ্ঞতা জানাই। আয়োজক কমিরি প্রতিও অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা রইলো।’ 

তিনি বলেন, ‘সত্যিই ১ নভেম্বর সন্ধ্যাটা আমার জীবনের স্মরণীয় হয়ে থাকবে। সেইসঙ্গে আমার সঙ্গে আমারই সবসময়ের সঙ্গী যে শ্রদ্ধেয় মিউজিসিয়ানরা ছিলেন তারাও অনুষ্ঠানটিকে প্রাণবন্ত করে তুলতে, উপভোগ্য করে তুলতে অনেক কষ্ট করেছেন। তারাও আমার এই প্রাপ্তিতে ভীষণ খুশি।’ 

অনুষ্ঠানে কুমার শানু টানা দুই ঘন্টা এবং আঁখি আলমগীর টানা দুই ঘন্টা সঙ্গীত পরিবেশন করে মুগ্ধতায় মাতিয়ে রাখেন দর্শককে। এদিকে গতকাল রবিবারই আঁখি কলকাতা থেকে ঢাকায় ফিরেন। এছাড়া স্টেজ মৌসুম শুরু হওয়ায় স্বাভাবিকভাবে ভীষণ ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন আঁখি। ঢাকায় ফিরেই তিনি স্টেজ শো’তে মেতে উঠবেন আবারো। 


আঁখির সর্বশেষ প্রকাশিত গান হচ্ছে ‘ল্যায়লা’ যা ধ্রুব মিউজিক স্টেশনে প্রকাশিত হয়। রুনা লায়লার সুরে তিনি ‘একটি সিনেমার গল্প’ সিনেমাতে প্লে-ব্যাক করেন। গানটি লিখেছেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন চিত্রনায়ক আলমগীর। 

আঁখি এরইমধ্যে দুটি নতুন গানেরও কাজ শেষ করেছেন। একটি গান হলো ‘তন্নি তনুকা’। এই গানটি লিখেছেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার ও সুর করেছেন আলাউদ্দিন আলী। এছাড়াও আকাশ সেনের সুরে নতুন একটি গানে কন্ঠ দিয়েছেন তিনি।


মন্তব্য করুন

সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার

© 2019 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh