জাতিসংঘ কর্মীদের নভেম্বরের বেতন আটকে যাচ্ছে

জাতিসংঘ সদরদপ্তর। ছবি: গুগল

জাতিসংঘ সদরদপ্তর। ছবি: গুগল

জাতিসংঘ কর্মীদের আগামী মাসের বেতন পরিশোধ করা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সংস্থার মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। 

যুক্তরাষ্ট্র, ইসরাইল, সৌদি আরবসহ ৬৪টি দেশ এখনো জাতিসংঘের চাঁদা না দেওয়ায় এই শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

গুতেরেস মঙ্গলবার বাজেট কমিটির বৈঠকে বলেন, ‘চলতি মাসে গত এক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বড় অর্থসংকটে পড়ব আমরা। নভেম্বরে বেতন দেয়ার মতো পর্যাপ্ত অর্থ না পাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে।’

তবে এই সংকট কমাতে এর মধ্যে বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। এর মধ্যে আছে, শূন্য পদগুলো এখন পূরণ না করা, শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় ভ্রমণের অনুমতি দেয়া ও বিভিন্ন বৈঠক পিছিয়ে দেয়া কিংবা বাতিল করা।

২০১৯ সালে জাতিসংঘ পরিচালনার বাজেট প্রায় ২৮ হাজার কোটি টাকা। এর ২২ শতাংশ দেয়ার কথা যুক্তরাষ্ট্রের, কিন্তু এখনো সেটা পাওয়া যায়নি।

জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্র মিশনের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের কাছে জাতিসংঘের পাওয়া টাকার একটি অংশ এই শরতে দেয়া হবে।

জাতিসংঘের সবচেয়ে বড় দাতা দেশ যুক্তরাষ্ট্র। তারা ছাড়াও ৬৪টি দেশ এখনো চাঁদা দেয়নি বলে জানিয়েছেন সংস্থার কর্মকর্তারা। এর মধ্যে কয়েকটি দেশ হচ্ছে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, মেক্সিকো, ইরান, ইসরাইল, সৌদি আরব, দক্ষিণ কোরিয়া, উত্তর কোরিয়া ও ভেনেজুয়েলা।

জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশন পরিচালনার জন্য আলাদা বাজেট রয়েছে। চলতি অর্থবছরে সেই বাজেটের পরিমাণ হচ্ছে ৬.৫১ বিলিয়ন ডলার। এই বাজেটের প্রায় ২৮ শতাংশ দেয়ার কথা যুক্তরাষ্ট্রের। তবে ২৫ শতাংশ অর্থ দেয়ার অঙ্গীকার করেছে দেশটি।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, জাতিসংঘ পরিচালনার অন্যায় ভার যুক্তরাষ্ট্র বহন করে চলেছে। সংস্থায় সংস্কার আনার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি। -ডয়চে ভেলে

মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh