ফনেটিক ইউনিজয়
গুরুতর অসুস্থ কথাসাহিত্যিক শওকত আলী

সম্প্রতি শওকত আলীকে রাজধানীর ল্যাব এইড হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি অধ্যাপক সমীরণ চক্রবর্তীর তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন। তাঁর শারীরিক অবস্থা খুব ভালো নয়। ৮১ বছর বয়সী শওকত আলীর ফুসফুসে সংক্রমণ হয়েছে বলে তাঁর ছেলে আসিফ শওকত কল্লোল জানিয়েছেন। সাম্প্রতিক দেশকাল পরিবার তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করছে।
তাঁর জন্ম ১৯৩৬ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি অখণ্ড ভারতের উত্তর দিনাজপুর জেলার থানা শহর রায়গঞ্জে।
ছাত্রজীবনে কমিউনিস্ট আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন তিনি। সাংবাদিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করলেও কিছুদিন পরে শিক্ষকতায় যোগ দেন তিনি। তৎকালীন জগন্নাথ কলেজের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ছিলেন এবং সরকারি সংগীত কলেজের অধ্যক্ষ থেকে অবসর গ্রহণ করেন। বাঙলাদেশ লেখক শিবিরের সভাপতির দায়িত্বও পালন করেন তিনি। তিনি নিয়মিত সাম্প্রতিক দেশকাল পত্রিকায় আত্মজীবনী লিখছেন, যা পাঠক মহলে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে।
কথাসাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য ১৯৯০ সালে একুশে পদক পান শওকত আলী। পরে বাংলা একাডেমি পুরস্কার, হুমায়ুন কবির স্মৃতি পুরস্কার, অজিত গুহ স্মৃতি সাহিত্য পুরস্কার পান। ‘দক্ষিণায়নের দিন’, ‘কুলায় কালস্রোত’ ও ‘পূর্বরাত্রি পূর্বদিন’ উপন্যাসত্রয়ীর জন্য তিনি ‘ফিলিপস সাহিত্য পুরস্কার’ পান।
তাঁর অন্যান্য উপন্যাসের মধ্যে রয়েছে ‘পিঙ্গল আকাশ’, ‘প্রদোষে প্রাকৃতজন’, ‘অপেক্ষা’, ‘গন্তব্যে অতঃপর’, ‘উত্তরের খেপ’, ‘অবশেষে প্রপাত’, ‘জননী ও জাতিকা’, ‘জোড় বিজোড়’।

Disconnect