ফনেটিক ইউনিজয়
বেজে উঠেছে বিপিএলের দামামা
মোয়াজ্জেম হোসেন রাসেল

ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগ হিসেবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) বিশেষ কদর রয়েছে ক্রিকেটবিশ্বে। মাঝখানের কিছুটা সময় নানা সমস্যা নিয়ে আয়োজিত হলেও এবার তা পাচ্ছে নতুন মাত্রা। আসর শুরুর কয়েকমাস আগে থেকেই শুরু হয়েছে প্রস্তুতি। তা তাই আগেভাগে দল গোছাতে ফ্র্যাঞ্চাইজিরা বিদেশি ক্রিকেটারদের অর্ন্তভুক্ত করতে রীতিমতো উঠেপড়ে লেগেছে। বাদ যাচ্ছেনা কোচ নিয়োগও। এই যেমন অল্প কদিনেই ‘চ্যাম্পিয়ন কোচ’ খ্যাত মাহেলা জয়বর্ধনেকে হেড কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে খুলনা টাইটানস। এছাড়া আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রথমবারের মতো শিরোপা জেতা পাকিস্তান দলের খেলোয়াড়দের নিয়েই কাড়াকাড়ি বেশি। বাদ যাচ্ছে না বয়সী ও তরুণ খেলোয়াড়রাও।
আগামী ৪ নভেম্বর শুরু হওয়ার কথা রয়েছে বিপেএলের পঞ্চম আসর। তার আগে ২ নভেম্বর হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। আর ‘প্লেয়ার্স ড্রাফট’ অনুষ্ঠিত হবে ১৬ সেপ্টেম্বর। গত আসরে সাতটি দল অংশ নিলেও  এবার সিলেট যোগ হওয়ায় দলের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াচ্ছে আটে।
কিছুটা আগেভাগেই বিপিএল মিশন শুরু করে দিয়েছে খুলনা। গত আসরের ব্যর্থতা ভুলতেই দলটি এমন সিদ্বান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে। আসর শুরুর পাঁচ মাস আগেই হেড কোচ নিয়োগ দিতে ঘটা করেই অনুষ্ঠান করেছে দলটি। খুলনার নতুন কোচ মাহেলা জয়াবর্ধনে, সঙ্গে রয়েছেন পুরনো অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। গতবারের বিপিএলে ঢাকার হয়ে খেলেছিলেন মাহেলা।
গত বিপিএলের পারফরম্যান্সের বিচারে মাহমুদউল্লাহর পাশে দলের বাকিরা ছিলেন ভীষণ ম্লান। ব্যাটে-বলে প্রায় সব ম্যাচে দলকে একাই টেনে নিয়ে যান এ অলরাউন্ডার। তবে ক্রিকেটকে ‘টিমগেম’ মেনে চলার নীতিতে বিশ্বাসী মাহমুদউল্লাহ জানালেন, ‘দলে কে কি করলো, সেটা বড় বিষয় নয়। আপনি নিজে কতোটা ভাল খেললেন সেটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তবে সাফল্য  পেতে হলে টিম হিসেবে খেলাটা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ।’
গত আসরে প্লে-অফ পর্বে খেলা দল খুলনা টাইটান্স এরইমধ্যে কয়েকজন বিদেশি খেলোয়াড়কে দলে ভিড়িয়েছে। আইপিএল মাতানো ক্রিস লিন, সরফরাজ আহমেদ, শাদাব খান, জুনায়েদ খান, কাইল অ্যাবোট, রাইলে রুশো ও সেকুগে প্রসন্নকে দলে ভিড়িয়েছে তারা। অন্যদিকে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল ঢাকা ডায়নামাইটস দলে ভিড়িয়েছে ওয়েষ্ট ইন্ডিজের সুনীল নারিন, এভিন লুইস, রভম্যান পাওয়েল, মোহাম্মদ আমীর, শহীদ আফ্রিদি, শেন ওয়াটসন, কুমার সাঙ্গাকারা, নিরোশান ডিসওয়ালা ও আসেলা গুণারতেœকে।
এদিকে, গত আসরের রানার্সআপ দল রাজশাহী কিংস ক্যারিবীয় ক্রিকেটার লেন্ডল সিমন্সকে দলে নিয়ে বিদেশি খেলোয়াড় সংগ্রহের অভিযান শুরু করেছে।
বাংলাদেশে বিপিএল নিয়ে মাতামাতি হলেও সমালোচনা কম হয়নি। ২০১৩ সালের আসরের কলঙ্কের দাগ লেপ্টে থাকবে সারাজীবন। মোহাম্মদ আশরাফুল নামের ক্রিকেটের ফুলের সর্বনাশটা হয়েছিল সেখানেই। জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক যতটা আলোয় ছিলেন, সেই আসর শেষে চলে গিয়েছিলেন ততটাই অন্ধকারে। ইমেজ সংকটে পড়ার পর এক মৌসুম আয়োজন করা হয়নি ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এ আসর। গত আসরটি মোটামুটি ভালোভাবেই শেষ করতে পেরেছিল আয়োজকরা। এবারের আসরকে সফল করার ক্ষেত্রে বিপিএল গর্ভর্নিং কাউন্সিলের সামনে রয়েছে এক বড় চ্যালেঞ্জ।

Disconnect