ফনেটিক ইউনিজয়
ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর ঘিরে নতুন আশা
তারিক আল বান্না

বাংলাদেশের ক্রীড়াক্ষেত্রে যতটুকু ভালো, তার শতকরা ৯০ ভাগ ক্রিকেটের কারণেই এসেছে। আকরাম খানদের যুগে সেই ভালোর শুরু হয়ে এখন মাশরাফি-সাকিব-মুশফিকদের মাধ্যমে চলছে। বাংলাদেশ এখন ওয়ানডে ও টেস্টে অনেক বড় দলগুলোকে টপকালেও টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অবস্থান এখনও নিচে। সর্বশেষ তারা আফগানিস্তানের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে। আর এটা ঘটল যখন নারী দলের জয়জয়কার। বাংলাদেশ নারী দল এশিয়া কাপ জেতার পর আয়ারল্যান্ডের মাটিতে সবে সিরিজ জিতেছে। বর্তমানে মুশফিক-তামিমরা ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে রয়েছেন। সেখানে তারা টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবেন। এ সফরে বাংলাদেশ তাদের হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনতে পারবে কিনা, সেটাই দেখার বিষয়।
আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের একটিতেও জয় পায়নি বাংলাদেশ। ফলে শূন্য হাতেই ফিরতে হয়েছে ভারতের দেরাদুন থেকে। আর আফগানিস্তানের কাছে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার তালিকায় যোগ হয়েছে বাংলাদেশের নাম। এর আগে টেস্ট খেলুড়ে দলগুলোর মধ্যে জিম্বাবুয়ে বাদে আর কোনো দলকে টি-টোয়েন্টি সিরিজের সব ম্যাচে জিততে পারেনি আফগানরা। মূলত চন্ডিকা হাথুরুসিংহে দায়িত্ব ছাড়ার পর এক প্রকার প্রধান কোচ ছাড়াই খেলেছে টাইগাররা। অবশেষে গত ৭ জুন বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ হিসেবে সাবেক ইংলিশ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান স্টিভ রোডস নিয়োগ পান। তার তত্ত্বাবধানে ২০ জুন ৪৮ দিনের সফরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ গেছে বাংলাদেশ দল।
ওয়েস্ট  ইন্ডিজ সফরে বাংলাদেশ দল দুই টেস্ট, তিন ওয়ানডে ও তিন টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে। সর্বশেষ ২০১৪ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গিয়েছিল বাংলাদেশ দল। সে বছরের মাঝামাঝি বাংলাদেশের কোচ হয়ে এসেছিলেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। দেশের মাটিতে ভারত সিরিজে দলের সঙ্গে থাকলেও তার আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব শুরু হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর দিয়ে। এবারও ওয়েস্ট ইন্ডিজেই শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের নতুন এক অধ্যায়। শুরু হচ্ছে নতুন কোচ স্টিভ রোডসের পথচলা। ৪ জুলাই অ্যান্টিগায় প্রথম টেস্ট দিয়ে শুরু বাটে-বলের আসল লড়াই। ৪-৮ জুলাই অ্যান্টিগায় প্রথম টেস্টের পর জ্যামাইকায় ১২ জুলাই মাঠে গড়াবে দ্বিতীয় ও চূড়ান্ত টেস্ট। ২২, ২৫ ও ২৮ জুলাই তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ। এরপর ৩১ জুলাই, ৪ আগস্ট ও ৫ আগস্ট তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। পুরো সিরিজের শেষ দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায়।
 বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে এখন পর্যন্ত ১২টি টেস্ট ম্যাচ হয়েছে। তার মধ্যে ক্যারিবীয়রা আটটিতে ও বাংলাদেশ দুটিতে জয়লাভ করেছে। ড্র হয়েছে বাকি দুটি টেস্ট। ওয়ানডেতে ২৮ ম্যাচের মধ্যে বাংলাদেশ সাতটিতে ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৯টিতে জিতেছে। দুটি ম্যাচে কোনো ফলাফল হয়নি। আর টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ দুটিতে জিতেছে, হেরেছে তিনটিতে। বাকি একটি ম্যাচের ফলাফল হয়নি। কিছুদিন আগেও বাংলাদেশ টেস্ট ও ওয়ানডে ক্রিকেটে দারুণ নৈপুণ্য দেখালেও এখন তাতে ভাটা পড়েছে। টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ অনেক বেশি পিছিয়ে। তবে বাংলাদেশ টেস্ট ও ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের তুলনায় এগিয়ে রয়েছে। টেস্টে বাংলাদেশ যেখানে আটে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ নয়ে। ওয়েনডেতে বাংলাদেশ সাতে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ নয়ে। আর টি-টোয়েন্টিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সাতে, বাংলাদেশ দশে। তবে দুই দলের অবস্থান যা-ই হোক, এবারের সফরে বাংলাদেশ নতুন করে সাফল্যের বার্তা বয়ে আনুক, সেটাই সবার আশা।

Disconnect