বিশ্বে ৩ কোটি ছাড়ালো করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা

বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা তিন কোটি ছাড়িয়েছে। পাশাপাশি ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৯ লাখ।  

গত বছরের ডিসেম্বেরর শেষের দিকে চীনের উহানে প্রথম এই প্রাণঘাতী ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত ২১৫টি দেশ ও অঞ্চলে তাণ্ডব চালাচ্ছে এই ভাইরাস। সংক্রমণ শুরুর দেড় মাসের মধ্যে এন্টার্কটিকা বাদে সব মহাদেশেই ধরা পড়ে রোগী। 

পরে গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

জরিপ পর্যালোচনাকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের আজ বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টার তথ্য অনুসারে, বৈশ্বিক এ মহামারিতে আক্রান্তের হার দ্রুত বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় এ সংখ্যা বেড়ে হয়েছে তিন কোটি ৩৬ হাজার ৮৬৮ জন। আর বিশ্বব্যাপী করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ লাখ ৪৫ হাজার ৯২ জনে। ভাইরাসটিতে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে দুই কোটি ৮০ লাখ ৪০ হাজার ৩০ জন। 

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া এ ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যায় সবার উপরে যুক্তরাষ্ট্র। সবচেয়ে বিপর্যস্ত এ দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৬৮ লাখ ২৮ হাজার ৩০১ জন মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ১ হাজার ৩৪৮ জনের।

যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত সংক্রমণের শীর্ষে রয়েছে ক্যালিফোর্নিয়া। অপরদিকে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু দেখেছে নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য। ক্যালিফোর্নিয়া, ফ্লোরিডা, টেক্সাস, নিউইয়র্ক ও জর্জিয়ায় সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যায় দ্বিতীয় স্থানে আছে ব্রাজিল। ভাইরাসে এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ৪৪ লাখ ২১ হাজার ৬৮৬ জন ও মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ৩৪ হাজার ১৭৪ জনের। 

করোনায় আক্রান্তের দিক দিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ভারত। যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি করোনার ভয়াবহতার শিকার হয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার জনবহুল এ দেশটি। দেশটিতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৫১ লাখ ১৮ হাজার ২৫৩ জন ও মৃত্যু হয়েছে ৮৩ হাজার ২৩০ জনের।

এরমধ্যে ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১ হাজার ১৩২ জন মারা গেছেন ও ৯৭ হাজার ৮৯৪ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে বিশ্বে একদিনে সর্বাধিক সংখ্যক কভিড রোগী শনাক্তের রেকর্ড করে ভারত।  

করোনায় আক্রান্তের হিসেবে তালিকায় চতুর্থ স্থানে আছে রাশিয়া। দেশটিতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১০ লাখ ৭৯ হাজার ৫১৯ জন ও মৃত্যু হয়েছে ১৮ হাজার ৯১৭ জনের।

করোনায় মৃতের দিক দিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে মেক্সিকো। দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭১ হাজার ৯৭৮ জনে আর আক্রান্ত হয়েছে ৬ লাখ ৮০ হাজার ৯৩১ জন।

করোনায় আক্রান্তের দিক দিয়ে পেরু পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৭ লাখ ৪৪ হাজার ৪০০ জন। এর মধ্যে মারা গেছে ৩১ হাজার ৫১ জন।

এদিকে ইউরোপে আবার করোনায় মৃত্যু বাড়ার আশঙ্কা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও)। সংস্থার ইউরোপীয় শাখার প্রধান হান্স ক্লুগ  বলেছেন, আমরা আশঙ্কা করছি, কেভিড-১৯-এর সংক্রমণ আবার বাড়বে, তার মানে হলো দুঃখজনকভাবে মৃত্যুও বাড়বে। পরিস্থিতি আরো কঠিন হবে। অক্টোবর ও নভেম্বরে আমরা আরও মৃত্যু দেখবো।

ইতোমধ্যে ইউরোপে করোনার দ্বিতীয় ধাপের (সেকেন্ড ওয়েব) সংক্রমণ শুরু হয়েছে। ফ্রান্সে দৈনিক সংক্রমণ ১০ হাজারের গণ্ডি ছুঁয়েছে। সংক্রমণ বেড়েছে যুক্তরাজ্যেও। উদ্বেগ সত্ত্বেও ছয় মাস পর স্কুল খুলে দিয়েছে ইউরোপে একসময়ে করোনার অন্যতম হটস্পট ইতালি।

আন্তর্জাতিক জরিপ পর্যালোচনাকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ তথ্য:

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh