মহাকাশ ঘুরে এলেন রিচার্ড ব্র্যানসন

মহাকাশ ভ্রমণের সময় ব্রিটিশ অভিযাত্রী ও ব্যবসায়ী স্যার রিচার্ড ব্র্যানসন।

মহাকাশ ভ্রমণের সময় ব্রিটিশ অভিযাত্রী ও ব্যবসায়ী স্যার রিচার্ড ব্র্যানসন।

শৈশব থেকেই মহাকাশযাত্রার স্বপ্ন ছিল। টুইটারে সে কথা আগেই বলেছেন ব্রিটিশ অভিযাত্রী ও ব্যবসায়ী স্যার রিচার্ড ব্র্যানসন। সেই স্বপ্ন পূরণে ২০০৪ সালে তিনি নিজস্ব একটি সংস্থা গড়েন। দীর্ঘ ১৭ বছর সাধনার পর রবিবার (১১ জুলাই) সেই স্বপ্ন পূরণে ব্র্যানসন নিউ মেক্সিকোর একটি উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে ভার্জিন গ্যালাক্টিক স্পেস শাটলে মহাকাশ যাত্রা করেন। অবশেষে ব্র্যানসনের মহাকাশ ছুঁয়ে আসার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। নিজ প্রতিষ্ঠানের তৈরি ভার্জিন গ্যালাকটিকের রকেট প্লেনটিতে চড়ে রবিবার তিনি যে উচ্চতায় পৌঁছেছেন সেখানে পৃথিবীর মধ্যাকর্ষণ প্রায় শূন্য।

মহাশূন্যের তীর ঘেঁষে মাত্র কয়েক মিনিট ওজনহীন অবস্থায় কাটানোর পর ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন স্যার রিচার্ড ব্র্যানসন।

তিনি বলছেন, এক জীবনের সেরা অভিজ্ঞতা এবং নতুন মহাকাশ যুগের সূচনা।

ভার্জিন গ্যালাকটিকের রকেট যানে চড়ে মহাকাশ ছুঁয়ে সফলভাবে অবতরণ করেছেন ভূ-পৃষ্ঠে। তিনিসহ ভার্জিন গ্যালাকটিকের ছয় পেশাদার ক্রুর সঙ্গে তার এই নভোপর্যটন মিশনের পরীক্ষামূলক উড্ডয়ণকে রয়টার্স বর্ণনা করেছে “সিম্বোলিক মাইলস্টোন” হিসেবে।

মাটি ছাড়ার এক ঘণ্টারও বেশি সময় পরে তিনি নিরাপদে পৃথিবীতে ফিরে আসেন। ফ্লাইটের পর এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আমি ছোটবেলা থেকেই এই মুহূর্তের স্বপ্ন দেখেছি। কিন্তু সত্যি বলতে কী মহাকাশ থেকে পৃথিবীর দৃশ্যের জন্য আসলে কোনো প্রস্তুতিই মূল অভিজ্ঞতার কাছাকাছি নয়। পুরো বিষয়টি ছিল জাদুকরী।

রকেট প্লেন ইউনিটিতে চড়ে স্যার রিচার্ড ভূ-পৃষ্ঠ থেকে দুই লাখ ৮২ হাজার ফিট বা ৮৫ কিলোমিটারর উচ্চতায় পৌঁছান। তার সঙ্গে ছিলেন রকেট যানের দুই পাইলট, ডেভ ম্যাকেই ও মাইকেল মাসুচ্চি এবং তিনজন মিশন স্পেশালিস্ট বেথ মোজেস, কলিন বেনেট ও সিরিশা ব্র্যান্ডলা।

ভূমিতে ফিরে আসার পর তিন মিশন স্পেশালিস্টের সঙ্গে স্যার রিচার্ডকে বাণিজ্যিক নভোচারীর উইং পরিয়ে দেন স্পেস স্পেশনের সাবেক কমান্ডার ও কানাডীয় নভোচারী ক্রিস হ্যাডফিল্ড।

আগামী বছর থেকেই স্যার রিচার্ড মহাকাশ পর্যটনের জন্য টিকেট বিক্রি শুরু করার পরিকল্পনা করেছেন। তার আগে এটি ছিল পূর্ণ ক্রুসহ টেস্ট ফ্লাইট।

ইতোমধ্যেই প্রায় আড়াই লাখ ডলারের টিকেট কিনে ইতোমধ্যে প্রায় ৬০০ ব্যক্তি এই অভিজ্ঞতার জন্য সিট বরাদ্দ করে রেখেছেন বলে জানিয়ে ভার্জিন গ্যালাকটিক।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh