জাতিসংঘে স্থান হচ্ছে না তালেবান ও মিয়ানমারের নতুন দূতের

আফগানিস্তানের তালেবান ও মিয়ানমারের জান্তা সরকার জাতিসংঘের কাছে তাদের দূত বদলের অনুরোধ জানিয়েছিল। কিন্তু জাতিসংঘ এখনও তাদের অনুরোধ নিয়ে কোনও সিদ্ধান্তে নেয়নি। বরং তারা দেরি করতেই চাইছে। 

এই দুই দেশের হয়ে কে প্রতিনিধিত্ব করবেন— এমন সিদ্ধান্ত নিতে গতকাল বুধবার (১ ডিসেম্বর) বৈঠকে বসেছিল জাতিসংঘের ক্রেডেনশিয়াল কমিটি। সেই বৈঠক থেকে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যতদিন সিদ্ধান্ত না হচ্ছে, ততদিন আগের সরকারের নির্বাচিত দূতরাই কাজ চালাবেন।

বৈঠক শেষে ওই কমিটির প্যানেল চেয়ার ও জাতিসংঘে নিযুক্ত সুইডেনের রাষ্ট্রদূত আনা কারিন অ্যানেস্ট্রম বলেন, আপাতত আফগানিস্তানের তালেবান ও মিয়ানমারের সামরিক জান্তার প্রতিনিধিদের জাতিসংঘে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। 

তবে জাতিসংঘে আগের সরকারের রাষ্ট্রদূতেরাই আফগানিস্তান ও মিয়ানমারের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করবেন কি না—এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি আনা।

মিয়ানমারের সেনাশাসকরা জাতিসংঘের বর্তমান দূতকে সরিয়ে দিয়ে সাবেক সেনা অফিসার অং থুরেইনকে চায়। গত ফেব্রুয়ারিতে অং সান সুচির নেতৃত্বে নির্বাচিত সরকারকে সরিয়ে দিয়ে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। সুচির বিরুদ্ধে তারা একাধিক অভিযোগ এনেছে। তার বিচারও চলছে।

জাতিসংঘে মিয়ানমারের বর্তমান দূত কিও মো টুন সেনা অভ্যুত্থানের বিরোধিতা করেছেন। মিয়ানমারের বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, টুনকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। কিন্তু জাতিসংঘ সেই সিদ্ধান্ত এখনও মানেনি।

তালেবানও আগের সরকারের নিয়োগ করা দূতকে সরিয়ে মোহাম্মদ সুহেইল শাহিনকে জাতিসংঘের দূত হিসাবে নিয়োগ করেছে। কিন্তু জাতিসংঘ তালেবানের সিদ্ধান্তও এখনও মানেনি।

গত আগস্টে তালেবান আফগানিস্তানে ক্ষমতা দখল করে। তারপর থেকে তারা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি চাইছে। কিন্তু জাতিসংঘের সেক্রেটারি জেনারেল গুতেরেস জানিয়েছেন, তালেবান তখনই স্বীকৃতি পাবে, যখন তারা আফগানিস্তানে মানবাধিকার রক্ষা করবে।

জতিসংঘে সুইডেনের দূত বলেছেন, ক্রেডেন্সিয়াল কমিটির রিপোর্ট নিয়ে সাধারণ পরিষদে আলোচনা হলে তা প্রকাশ করা হবে। এই কমিটিতে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন ছাড়া সুইডেন, বাহামা, ভুটান, চিলি, নামিবিয়া ও সিয়েরা লিওনের প্রতিনিধিরা আছেন। -ডয়চে ভেলে ও রয়টার্স

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //