চামড়া খাতের উন্নয়নে আলাদা সংস্থা চান উদ্যোক্তারা

দেশের চামড়া ও চামড়াজাত শিল্পের প্রত্যাশিত উন্নয়নের জন্য চামড়া সম্পর্কিত বিষয়াদি দেখভালের দায়িত্ব একটি নির্দিষ্ট সংস্থাকে প্রদানের আহবান জানিয়েছেন এই খাতের শিল্পোদ্যোক্তারা।

গতকাল মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) চামড়া খাত নিয়ে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরাম (ইআরএফ), রিসার্স এন্ড পলিসি ইন্টিগ্রেশন ফর ডেভেলপমেন্ট (র‌্যাপিড) ও দ্য এশিয়া ফাউন্ডেশন যৌথভাবে আয়োজিত এক অনলাইন সেমিনারে (ওয়েবিনার) তারা এসব কথা বলেন। উদ্যোক্তাদের পাশাপাশি এ সময় অর্থনীতিবিদ ও অর্থনীতি বিষয়ক সাংবাদিকরা তাদের মতামত তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ড. মো. জাফর উদ্দীন।

সালমান রহমান বলেন, সাভারের চামড়া শিল্প নগরীতে এখনও সিইটিপি (কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগার) ও প্রয়োজনীয় অবকাঠামো পুরোপুরি প্রস্তুত হয়নি।

এ সময় তিনি প্রকল্পে বর্তমানে মাত্রাতিরিক্ত পানির ব্যবহার হচ্ছে উল্লেখ করে বলেন, এটি নিয়ন্ত্রণে না আসলে আমরা পানির উপর কর আরোপে বাধ্য হবো। এর পাশাপাশি চামড়া শিল্পের উন্নয়নে ভিয়েতনামের সাথে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে কাজ করা, রফতানি পণ্য চামড়া ও চামড়াবিহীন পণ্য আলাদা করার উপর গুরুত্ব দেন তিনি।

আলোচনায় অংশ নিয়ে অ্যাপেক্স গ্রুপের প্রধান সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর বলেন, চামড়াজাত পণ্যের কাঁচামাল থাকা সত্বেও আমরা প্রত্যাশিত অগ্রগতি করতে পারিনি। অথচ ভিয়েতনাম কাঁচামাল না থাকা সত্বেও এ খাতের রফতানিতে বহুদূর এগিয়ে গেছে। এ খাতের উন্নয়ন একক সংস্থার উপর দায়িত্ব দেওয়ার দাবি জানান তিনি।

এ সময় বক্তারা প্রায় এক যুগেও সাভারের চামড়া শিল্প নগরীর যথাযথ প্রস্তুত না হওয়া, কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকা ও বর্জ্য পাশের ধলেশ্বরী নদীতে যাওয়ায় পরিবেশ দুষণ এবং এসব কারণে আন্তর্জাতিক মান নির্ধারণকারী প্রতিষ্ঠানের (এলডব্লিওজি) সনদ না পাওয়ার মতো বিষয়টি তুলে ধরে এসব ঘটনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার প্রসঙ্গও তোলেন। 

এ পরিস্থিতিতে দ্বিতীয় প্রধান রফতানিখাত হিসেবে এ খাতের ভবিষ্যত রক্ষায় সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোকে দ্রুত ও যথাযথ উদ্যোগ নেয়ার আহ্বান জানান তারা।

ইআরএফ সভপতি সাইফ ইসলাম দিলালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন এশিয়া ফাউন্ডেশনের আবাসিক প্রধান কাজী ফয়সাল বিন সিরাজ, বিটিএর চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ, বিএফএলএলএফইএর সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ মাহিন, ইআরএফ সাধারণ সম্পাদক এস এম রাশিদুল ইসলাম প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

র‌্যাপিড চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক ও নির্বাহী পরিচালক ড. এম আবু ইউসুফ ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। -বাসস

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh