টোকিওতে শক্তিশালী ভূমিকম্প

জাপানের রাজধানী টোকিও এবং আশপাশের এলাকা শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে। বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) রাতে আঘাত হানা এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলের ৬ দশমিক ১। তবে ভূমিকম্পের পর সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি বলে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া সংস্থা।

ফরাসি বার্তাসংস্থা এএফপি বলছে, ভূমিকম্পের কারণে টোকিও ও এর আশপাশের ভবনগুলো দুলেছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের ফোনে জরুরি সতর্কবার্তা পাঠিয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয় কর্তৃপক্ষ।

জাপানের আবহাওয়া সংস্থার প্রাথমিক তথ্য বলছে, ভূমিকম্পের কেন্দ্র ছিল রাজধানী টেকিওর পূর্বাঞ্চলের চিবা শহর। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৪১ মিনিটের দিকে এই ভূমিকম্পের উৎপত্তি হয়েছে চিবার ৮০ কিলোমিটার ভূগর্ভে। তবে ভূমিকম্পে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো হতাহত কিংবা ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপসংস্থা ইউএসজিএ বলছে, ৬১ কিলোমিটার ভূগর্ভে উৎপত্তি হওয়া এই ভূমিকম্পের রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৫ দশমিক ৯। 

ভূমিকম্পের পর সতর্কতা হিসেবে কিছু বুলেট এবং লোকাল ট্রেনের পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু স্থানীয় সংবাদমাধ্যম টোকিও এবং এর আশপাশের এলাকার খবর দিয়ে বলেছে, কম্পনের কারণে সেখানে গুরুতর কোনো প্রভাব দেখা যায়নি। আঞ্চলিক পারমাণবিক কেন্দ্রগুলোতেও পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে; তবে এখন পর্যন্ত এতে অস্বাভাবিকতার কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

তবে ভূমিকম্পের পর টোকিও শত শত বাড়িঘর বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। সম্প্রতি টোকিওতে যে কয়েকটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে তার মধ্যে বৃহস্পতিবারেরটি তুলনামূলক শক্তিশালী ছিল। জাপানে প্রায়ই এ ধরনের ভূমিকম্প আঘাত হানে।

দেশটির নবনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা এক  টুইটে ‌‘সর্বশেষ তথ্য যাচাই-বাছাইয়ের পর জীবন বাঁচানোর পদক্ষেপ নিতে বাসিন্দাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। প্রশান্ত মহাসাগরের ভূমিকম্পপ্রবণ ‘রিং অব ফায়ার’-এ অবস্থান করছে। তীব্র কম্পনপ্রবণ এই ‘রিং অব ফায়ার’ দক্ষিণপূর্ব এশিয়া এবং প্রশান্ত মহাসাগরজুড়ে বিস্তৃত।

গত সপ্তাহেও জাপানের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলের উপকূলীয় এলাকায় ৬ দশমিক ১ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। তবে এই ভূমিকম্পেও কোনও ক্ষয়ক্ষতি কিংবা হতাহত হয়নি। 

২০১১ সালের ১১ মার্চ জাপানের সাগরের তলদেশে শুরু হওয়া এক ভূমিকম্পের দুঃসহ স্মৃতি এখনও জাপানিদের তাড়া করে ফেরে। ওই ভূমিকম্পের কারণে ধেয়ে আসা সুনামিতে ফুকুশিমা পারমাণবিক দুর্ঘটনা ঘটে। এতে সাড়ে ১৮ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হন।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //