ফাইজার টিকার বিরল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় একজনের মৃত্যু

নিউজিল্যান্ডে মার্কিন ড্রাগ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান বায়োএনটেকের প্রস্তুতকৃত করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন ফাইজার টিকা গ্রহণকারী এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে এটিই ফাইজারের টিকা নিয়ে মৃত্যুর প্রথম ঘটনা।

সোমবার (৩০ আগস্ট) নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানায়। তবে মৃত নারীর বয়স নিয়ে কিছুই জানায়নি দেশটির  স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ফাইজারের টিকা গ্রহণকারীর মৃত্যুর খবর এমন এক সময়ে এলো যখন প্রায় ৬ মাস ভাইরাসমুক্ত থাকার পর ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের প্রভাবে নিউজিল্যান্ডে ফের কোভিডের সংক্রমণ শুরু হয়েছে। ফলশ্রুতিতে দেশটিতে এখন কঠোর লকডাউন চলছে।

দেশটির ভ্যাকসিন মনিটরিং প্যানেলের ধারণা, মায়োকার্ডাইটিসের কারণে ওই নারীর মৃত্যু হয়েছে। মায়োকার্ডাইটিস হলো হৃৎপিণ্ডের পেশির প্রদাহ, যা রক্ত সঞ্চালন করার জন্য অঙ্গের ক্ষমতাকে সীমিত করতে পারে এবং হৃদস্পন্দনের ছন্দে পরিবর্তন আনতে পারে।

প্রসঙ্গত, মায়োকার্ডাইটিস হলো ফাইজার টিকার বিরল কিন্তু পরিচিত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া।

প্রতিক্রিয়ায় ফাইজারও একই কথা জানিয়ে বলে, টিকা দেওয়ার পরে মায়োকার্ডাইটিসের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে, কিন্তু তা অত্যন্ত বিরল।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলেছে যে একই সময়ে অন্যান্য চিকিৎসা সমস্যার ফলেও টিকা দেওয়ার পর ফলাফল প্রভাবিত করতে পারে।

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন হিসেবে নিউজিল্যান্ডে ফাইজার, জনসন ও অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকার অনুমোদন দেওয়া হয়। এখন পর্যন্ত দেশটির ৩৩ লাখ মানুষ করোনাভাইরাসের টিকার উভয় ডোজ নিয়েছেন।

তবে ফাইজার টিকা নেওয়ার পর টিকা গ্রহীতার মৃত্যুর পরেও নিউজিল্যান্ডে ফাইজারের টিকার ব্যবহার অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে দেশটির সেফটি মনিটরিং বোর্ড। তাদের ভাষ্যমতে, সম্ভাব্য ঝুঁকির তুলনায় করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ফাইজারের সুফল অনেক বেশি। মায়োকার্ডাইটিস-সহ অন্যান্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার চেয়েও ফাইজারের টিকার সুফল বেশি।

এছাড়া, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় এবং আক্রান্ত হলেও গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়া ও মৃত্যুর শঙ্কা হ্রাসে ফাইজারের টিকা অত্যন্ত কার্যকর বলেও জানায় তারা।

উল্লেখ্য, চীনের উহান থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার পর নিউজিল্যান্ডে এখন পর্যন্ত সব মিলিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৩,৫১৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২৬ জনের। সোমবার দেশটিতে নতুন করে ৫৩ জন কোভিড শনাক্ত হয়।

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //