অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্টে প্রতি ৩ জনের একজন যৌন হয়রানির শিকার

অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্টে কাজ করছেন এমন প্রত্যেক তিনজনের মধ্যে অন্তত একজন সেখানে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন।পার্লামেন্টে কর্মক্ষেত্রের সংস্কৃতির বিষয়ে স্বতন্ত্র এক তদন্ত প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। 

এতে বলা হয়েছে, দেশটিরপার্লামেন্টে কর্মরত লোকজনদের প্রতি তিনজনের মধ্যে অন্তত একজন কর্মজীবনের কোনো না কোনো সময় যৌন নিপীড়নের অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছেন।পার্লামেন্ট ভবনে ধর্ষণের এক ঘটনার পর গত ফেব্রুয়ারিতে ব্যাপক সমালোচনা ও চাপে মুখে পড়েন দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। পরে তিনি এই ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দেন।

তদন্ত প্রতিবেদনে পার্লামেন্টে যৌন নিপীড়নের ঘটনার প্রমাণ পেয়েছে কমিটি। একই সঙ্গে পার্লামেন্টের এমন ঘটনাকে ‘ভয়ানক’ ও ‘বিরক্তিকর’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে।

তদন্ত প্রতিবেদনে ব্যাপক অযৌক্তিক আচরণের বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরে বলা হয়েছে, যারা তদন্ত কমিটির কাছে নিজেদের অভিজ্ঞতা জানিয়েছেন তাদের অর্ধেকেরও বেশি অন্তত একবার যৌন হয়রানি, নিপীড়ন অথবা প্রকৃত অথবা যৌন নিপীড়নের চেষ্টার মুখোমুখি হয়েছেন।

গত ফেব্রুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ার সরকারের উপদেষ্টা ব্রিটানি হিগিনস ২০১৯ সালে পার্লামেন্টের এক মন্ত্রীর অফিসে সহকর্মীর ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন বলে অভিযোগ করেন। পরে পার্লামেন্টের ভেতরে দেশটির রক্ষণশীল সরকারের কর্মীদের রগরগে যৌনতার আরেকটি ভিডিও ফাঁস হয়ে যায়।

সংসদের এক নারী এমপির ডেস্কের ওপর পার্লামেন্টের এক কর্মীর হস্তমৈথুন ও অন্যান্য যৌনতার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফাঁসের পর দেশটির প্রধানমন্ত্রী মরিসন নেতৃত্বাধীন প্রশাসন বড় ধরনের কেলেঙ্কারির মুখোমুখি হয়েছিল।

ছবি ও ভিডিও ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর দেশটির পার্লামেন্টের নারী সদস্য ও সাধারণ জনগণের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সঞ্চার হয়। পার্লামেন্টে নারী সহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগ ঘিরে দেশজুড়ে বিক্ষোভ-প্রতিবাদের মাঝে যৌন কেলেঙ্কারির নতুন এই ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দেন মরিসন।

ওই ঘটনার এক মাস পর দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেলের বিরুদ্ধে ১৯৮৮ সালে ছাত্রজীবনে ১৬ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেন অ্যাটর্নি জেনারেল।

নারী-পুরুষ লিঙ্গ বৈষম্য রোধ, নতুন মদ্যপানীয় নীতি ও অভিযোগ মোকাবিলায় নতুন মানবসম্পদ অফিসসহ তদন্ত প্রতিবেদনে ২৮টি সুপারিশ করা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার সরকার বলেছে, পার্লামেন্টে যৌন নিপীড়নের ঘটনা রোধে তদন্ত কমিটির সুপারিশ যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করা হবে।

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //