করোনার টিকা নিতে ৩ লাখ ২৮ হাজার নিবন্ধন

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে আগামীকাল রবিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) থেকে করোনাভাইরাসের টিকা প্রদান কার্যক্রম একযোগে শুরু হচ্ছে। আর টিকা ভ্যাকসিন নিতে এখন পর্যন্ত ৩ লাখ ২৮ হাজার ১৩ জন নিবন্ধন করেছেন। 

আজ শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে করোনা টিকাদান কর্মসূচির প্রস্তুতি পরিদর্শন শেষে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ডাক্তার নাসিমা সুলতানা।

তিনি বলেন, কাল সকাল ৯টা থেকে সারা দেশে একযোগে টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে। রাজধানীতে ৪৩টি সরকারি হাসপাতালে দেয়া হবে টিকা। এছাড়া সুরক্ষা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে নিবন্ধনে এখন যে জটিলতা হচ্ছে ধীরে ধীরে তা কেটে যাবে।

জানুয়ারি মাসে যারা টিকা নিয়েছেন তাদের কারও সেভাবে পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়নি। তাই বিভ্রান্ত না হয়ে সবাইকে টিকা নেয়ার আহ্বান জানান অতিরিক্ত মহাপরিচালক।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেমের পরিচালক মিজানুর রহমান বলেন, আগামীকাল যারা টিকা নেবেন, তাদের কাছে আজ শনিবার বিকেলের মধ্যে মুঠোফোনে খুদে বার্তা পৌঁছে যাবে। যারা নিবন্ধন করেছেন, তাদের তালিকা দেশের সব টিকাকেন্দ্রে পৌঁছে গেছে। কেন্দ্র থেকে কোন দিন কারা টিকা নেবেন, সেটা নির্ধারণ করা হবে।

সারাদেশে করোনার টিকা প্রয়োগের প্রথম দিন এক হাজার ১৫টি কেন্দ্রে টিকা দেয়া হবে। টিকাদানে নিয়োজিত থাকবে স্বাস্থ্যকর্মীদের দুই হাজার ৪০২টি দল।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার লাইন ডিরেক্টর ও মুখপাত্র অধ্যাপক ডা. মো. নাজমুল ইসলাম আলম বলেন, ঢাকায় ৫৬টি স্থানে টিকা দেযা হবে। সেখানে কাজ করবে স্বাস্থ্যকর্মীদের ২০৬টি দল। ঢাকার বাইরে সারাদেশের বিভিন্ন হাসপাতাল, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মিলিয়ে ৯৫৯ স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। এসব জায়গায় ২ হাজার ১৯৬টি দল টিকাদান কার্যক্রম পরিচালনা করবে। দুইজন স্বাস্থ্যকর্মী ও দুইজন স্বেচ্ছাসেবক মিলিয়ে প্রতিটি দলে চারজন সদস্য থাকবেন।

তিনি আরো বলেন, আগামীকাল গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের টিকা নেয়ার জন্য কয়েকটি স্থান নির্ধারণ হয়েছে। সরকারের মন্ত্রী, সংসদ সদস্যরা মহাখালীর শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে টিকা নেবেন। সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য সচিবালয় ক্লিনিক ও সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল, আইনজীবীরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে টিকা নিতে পারবেন। এর বাইরেও সবাই নিজের পছন্দমতো জায়গা থেকে টিকা নিতে পারবেন।

এর আগে গত ২৭ জানুয়ারি দেশে প্রথম করোনা টিকা দেয়া শুরু হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

এর একদিন পর রাজধানীর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল, মুগদা জেনারেল হাসপাতাল ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) প্রাথমিকভাবে ৫৪১ জনকে টিকা প্রদান করা হয়। তাদের মধ্যে ২৯৬ জন চিকিৎসক, ৩২ জন নার্স ও অন্যান্য পেশার ২০৮ জন রয়েছেন।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh