এক সপ্তাহে করোনায় মৃত্যু কমেছে ৩৩ শতাংশ

ছবি : স্টার মেইল

ছবি : স্টার মেইল

সংক্রমণে রোধে বিধিনিষেধের মধ্যে দেশে গত এক সপ্তাহে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ৩৩ দশমিক ১৫ শতাংশ কমেছে।

চলতি সপ্তাহে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২৪৬ জন মারা গেছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। আগের সপ্তাহে ৩৬৮ জন মারা গিয়েছিল। সে হিসাবে গত সপ্তাহে মৃত্যুর সংখ্যা ১২২ জন বেশি ছিল।

মৃত্যুর পাশাপাশি নমুনা পরীক্ষা, পরীক্ষা অনুযায়ী শনাক্ত, সুস্থ রোগীর সংখ্যার সংখ্যাও কমেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, ২০২১ সালের ১৯ তম অ্যাপিডেমিওলজিক্যাল সপ্তাহ হিসাব করা হয়েছে ৯ থেকে ১৫ মে পর্যন্ত। এর আগে ২ থেকে ৮ মে তারিখ পর্যন্ত ছিল ১৮তম অ্যাপিডেমিওলজিক্যাল সপ্তাহ।

আইইডিসিআরের উপদেষ্টা ডা. মুশতাক হোসেন মনে করছেন, যে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে এপ্রিল থেকে, তার ফলেই সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে।

তিনি বলেন, এই ফলাফল আগের দুই সপ্তাহের সংক্রমণ পরিস্থিতির ফল। সে সময় মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মেনেছে। লকডাউন পুরোদমেই চলছিল।

তবে তিনি বলেন, ঈদের আগে-পরে লোকসমাগম বেশি হওয়ার ফলাফল পাওয়া যাবে আরও দুই সপ্তাহ পর।

এখন যে পরিস্থিতি তাতে সংক্রমণ কিছুটা বাড়বে। বিপণি বিতান খোলা ছিল, ঈদকে সামনে রেখে মানুষের যাতায়াত ছিল বেশি। এছাড়া মসজিদেও মানুষের উপস্থিতি ছিল বেশি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, ১৮তম সপ্তাহে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল ১ লাখ ২৯ হাজার ১৫৮টি। এ সপ্তাহে ৮৮ হাজার ৩০৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যা আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩১ দশমিক ৬৩ শতাংশ কম।

গত সপ্তাহে ১১ হাজার ৫৪৩ জন শনাক্তের বিপরীতে এ সপ্তাহে শনাক্ত হয়েছে ৭ হাজার ৬৬৯ জন। এটি আগের সপ্তাহের চেয়ে শতকরা ৩৩ দশমিক ৫৬ শতাংশ কম।

আবার সুস্থতার হারও কমেছে এক সপ্তাহে। ১৮ তম সপ্তাহে সেরে উঠেছিলেন ২২ হাজার ১৬২ জন। এ সপ্তাহে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ১৪ হাজার ৬০২ জন, যা আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩৪ দশমিক ১১ শতাংশ কম।

শনিবার নমুনা পরীক্ষা অনুযায়ী শনাক্তের হার ছিল ৬ দশমিক ৯৫ শতাংশ, যা গত কয়েক সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন।

বাংলাদেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ে। প্রথম মৃত্যুর খবর আসে ওই বছরের ১৮ মার্চ।

শনিবার পর্যন্ত দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন ৭ লাখ ৭৯ হাজার ৭৯৬ জন। এই রোগে মারা গেছেন ১২ হাজার ১২৪ জন মানুষ।

গত বছরের নভেম্বরের পর থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ কমতে শুরু করলেও এ বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে সংক্রমণ আবার বাড়তে থাকে।

পুরো এপ্রিল মাস জুড়ে শনাক্ত এবং মৃত্যুর নতুন নতুন রেকর্ড হয়েছে। এপ্রিল মাসে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৪৭ হাজার ৮৩৭ জন। এ সময় ২ হাজার ৪০৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই দুটিই বাংলাদেশে এক মাসে শনাক্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh