লঞ্চভাড়া বাড়ানোর বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে সড়কে বাসভাড়া বৃদ্ধির পর এবার লঞ্চভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে হার নির্ধারণে ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করা হয়েছে। কমিটি দুই থেকে একদিনের মধ্যে ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব করবে। চলতি মাসের ১০ তারিখের মধ্যে গেজেট প্রকাশ করা হবে।

আজ সোমবার (৮ আগস্ট) নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরে বৈঠকের সভাপতি নৌপরিবহন সচিব মো. মোস্তফা কামাল এসব তথ্য জানান।

নৌপরিবহন সচিব বলেন, মালিকদের প্রস্তাবিত ভাড়ার হার বেশি। এজন্য কমিটি করা হয়েছে। কেউ যেনো ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেজন্য কাজ করবে ওয়ার্কিং গ্রুপ। প্রজ্ঞাপন হওয়ার আগ পর্যন্ত আগের ভাড়াতেই লঞ্চে যাত্রী পরিবহন করা হবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল (যাত্রী পরিবহন) সংস্থার পক্ষ থেকে লঞ্চ ভাড়া ১০০ ভাগ বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রস্তাবনা নিয়ে মালিক সমিতির প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠক হয়।

এর আগে, গত বছরের ৪ নভেম্বর ডিজেল ও কেরোসিনের দাম প্রতি লিটারে ভোক্তা পর্যায়ে ৬৫ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০ টাকা পুনর্নির্ধারণ করে সরকার। গত ৮ নভেম্বর থেকে বাড়ানো হয় লঞ্চভাড়া। ওই সময় কিলোমিটার প্রতি লঞ্চভাড়া ৬০ পয়সা বাড়ে, যা শতাংশের হিসাবে কম দূরত্বের লঞ্চের ক্ষেত্রে ৩৫ দশমিক ২৯ শতাংশ ও বেশি দূরত্বের ক্ষেত্রে ৪২ শতাংশ বাড়ানো হয়।

তখন প্রথম ১০০ কিলোমিটার দূরত্বের জন্য প্রতি কিলোমিটারে জনপ্রতি ভাড়া ৬০ পয়সা বাড়িয়ে দুই টাকা ৩০ পয়সা এবং প্রথম ১০০ কিলোমিটারের বেশি দূরত্বের জন্য প্রতি কিলোমিটারে জনপ্রতি ভাড়া ৬০ পয়সা বাড়িয়ে দুই টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিল। জনপ্রতি সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারণ করা হয় ২৫ টাকা।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //