পরীমনি ও সাকলায়েন বিষয়ে যা বললেন ব্যবসায়ী নাসির

চিত্রনায়িকা পরীমনির সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের কারণে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) সাবেক অতিরিক্ত উপকমিশনার মো. গোলাম সাকলায়েনকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানোর প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। 

সাকলায়েনের অবসরের সেই নোটিশে বলা হয়, সাকলায়েন ধারাবাহিকভাবে নায়িকা পরীমনির বাসায় নিয়মিত রাত্রি যাপন করতে শুরু করেন। বিভিন্ন সময়ে (দিনে ও রাতে) নায়িকা পরী মনির বাসায় সাকলায়েন অবস্থান করেছেন বলে মোবাইলের ফরেনসিক রিপোর্ট দেখে প্রমাণ পাওয়া যায়।

সাকলায়েনের  অবসরে পাঠানোর খবর প্রকাশিত হওয়ার পর এবার মুখ খুলেছেন ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ। সম্প্রতি দেশের এক গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নাসির উদ্দিন মাহমুদ বলেন, পরীমনির সঙ্গে গোলাম সাকলায়েনের সম্পর্ক অনেক আগ থেকেই ছিলো। অর্থাৎ পরীমনি এবং তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘটনার আগ থেকেই।

তিনি বলেন, যেদিন তাকে গ্রেপ্তার করা হয় ডিবি থেকে সেদিন গোলাম সাকলায়েনের আসার অনুমতি ছিলো না (কোনো বিশেষ কারণে তার অপারেশনে যাওয়ার অনুমতি ছিলো না)। তারপরও তাকে স্পটে দেখা গেছে। খুব উৎফুল্ল ছিলেন সাকলায়েন। ডিবি কার্যালয়ে নেওয়ার পর পরীমনিও সেখানে আসেন। সাকলায়েন তাকে সেখানে নিয়ে গেছে।

তিনি আরও বলেন, আমার ধারণা, সাকলায়েনের সঙ্গে সম্পর্কের কারণেই তাকে দিয়েই এমন কিছু ঘটিয়েছে বা এমন আরও সাকলায়েন থাকতে পারে বলেও জানান তিনি।

সাভার বোট ক্লাবে কাণ্ড ঘটিয়ে পরীমনি সফল হয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, পরীমনিকে' কয়জন চিনতো, আমি নিজেও চিনতাম না। ওই ঘটনার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত আমি তার নামও জানতাম না। এখন তাকে সবাই চেনে। তার পরিচিতি লাভের জন্য বোটক্লাবে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।

এর আগে নাসির উদ্দিন মাহমুদকে হত্যাচেষ্টা, মারধর, ভাঙচুর ও ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগে করা মামলায় গত ২৫ জুন জামিন পেয়েছেন পরীমনি।

এদিকে সাকলায়েনের চাকুরিচ্যুত হওয়ার খবরে পরীমনি একাধিক সংবাদ মাধ্যমে বলেছেন, সাকলায়েন ব্যক্তিগত আক্রোশের শিকার।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //