চলতি অর্থবছরে ৬.৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধির সম্ভাবনা : এডিবি

চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি হবে ৬ দশমিক ৯ শতাংশ এবং আগামী অর্থবছরে তা আরো বেড়ে দাঁড়াবে ৭ দশমিক ১ শতাংশ হবে বলে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।

সরকারি ব্যয় বৃদ্ধি, বেসরকারি খাতের সক্রিয় অংশগ্রহণ, অভ্যন্তরীণ চাহিদা ও রপ্তানি এ প্রবৃদ্ধির পেছনে ভূমিকা রাখছে।

আজ বুধবার (৬ এপ্রিল) বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায় এডিবির সদরদপ্তর ফিলিপাইনের ম্যানিলা থেকে একযোগে সদস্য দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতির ওপর প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

বাংলাদেশে গত অর্থবছরের মতো চলতি অর্থবছরেও উচ্চপ্রবৃদ্ধি বজায় থাকবে বলে পূর্বাভাসে বলা হয়। এছাড়াও, গত ২০২০-২১ অর্থবছরে এই হার ছিল ৬ দশমিক ৯ শতাংশ ছিল বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

তবে এই প্রবৃদ্ধি অর্জনের ক্ষেত্রে কিছু ঝুঁকির কথা উল্লেখ করে প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার ফলে বিশ্ব অর্থনীতি যে চাপের মধ্যে পড়বে এবং আন্তর্জাতিক তেলের মূল্য বৃদ্ধি ও উচ্চ আমদানি ব্যয় বাংলাদেশের অর্থনীতিতে কী প্রভাব ফেলবে তার ওপর নির্ভর করছে শেষ পর্যন্ত প্রবৃদ্ধি কতটা অর্জিত হবে সে বিষয়টি।

এছাড়া করোনাভাইরাস মহামারির নেতিবাচক প্রভাব কমে যাওয়ায় বিশ্বব্যাপী ভোগ-ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও জীবনযাত্রার ব্যয় বাড়বে। বৈদেশিক লেনদেনের ভারসাম্যে বড় অংকের ঘাটতি দেখা দিতে পারে, যা বাংলাদেশ ব্যাংকের হস্তক্ষেপের পরও ডলারের বিপরীতে টাকাকে দুর্বল করতে পারে।

এডিবি বলেছে, গত অর্থবছরে এর আগের বছরের তুলনায় মুদ্রাস্ফীতির হার কমে ৫ দশমিক ৬ শতাংশ হলেও চলতি অর্থবছর তা বেড়ে ৬ শতাংশ হতে পারে।

বৈদেশিক লেনদেনের ক্ষেত্রে চলতি হিসেবে ঘাটতি জিডিপির ২ দশমিক ৭ শতাংশ হতে পারে; যা গত অর্থবছরে ছিল মাত্র ০ দশমিক ৯ শতাংশ। -ডেইলি স্টার


Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //