সুভাষ ঘাইয়ের যৌন নির্যাতনের শিকার মণীষা কৈরালা

মণীষা কৈরালা। ক্যানসারের মতো মারণরোগের সাথে লড়াই। বলিউডে পাকাপোক্ত জায়গা। এ সবের বাইরেও তার জীবনের একটা কালো সময় থেকে গিয়েছে। সেই অশান্তির সময় প্রকাশ পেয়েছে তার মা সুষমা কৈরালার মাধ্যমে।

১৯৯১ সালে নেপালি মেয়ে মণীষাকে ‘সওদাগর’ ছবিতে নায়িকার চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ দেন পরিচালক সুভাষ ঘাই। তার সাথেই রটে যায় সুভাষ ঘাই নাকি মণীষার ওপর যৌন নির্যাতন করেছিলেন। এই খবরে সে সময় উত্তাল হয় বলিউড।


মণীষা নিজে এ নিয়ে মুখ না খুললেও তার মা সর্বত্র এই যৌন নিগ্রহের ঘটনার কথা বলতে শুরু করেন। নায়িকা চুপ করে থাকলেও তার মা যখন এই ঘটনাকে মান্যতা দেন তখন ক্রমশই পরিচালকের প্রতি বিরূপতা দেখাতে শুরু করে বলিউড।

মণীষার মা জানান, তার মেয়ে কোথায় যাবে? কী পরবে? কার সাথে মেলামেশা করবে সে সময় তার সব কিছুই সুভাষ ঘাইয়ের নিয়ন্ত্রণে ছিল। মণীষা নিজে কিছুই করতে পারতেন না। কিছু বলতেনও না।


অবস্থা এমন হয় যে মেকআপ ভ্যানে মণীষার সাথে আলাদা কথা বলতে চাইলেও পরিচালক তার মাকে প্রবেশের অনুমতি দিতেন না। অথচ তিনি নিজে দিনের পর দিন মণীষার সাথে একা মেকআপ ভ্যানেই সময় কাটাতেন।

মেয়ের ওপর পরিচালকের এমন নিয়ন্ত্রণ মায়ের সহ্যসীমা ছাড়িয়ে গিয়েছিল, তিনি এই ঘটনা সর্বত্র বলতে থাকেন। সুভাষ ঘাই যে মণীষার ওপর যৌন নিগ্রহ করেছেন সে বিষয়ে নিশ্চিত হয়েই তিনি জানান, মণীষা ভয় পেয়ে, লজ্জায় মুখ খোলেননি।


তবে বি-টাউনের একাংশের ধারণা মণীষার মা মিথ্যে পরিচালকের ওপর দোষারোপ করেছেন। যদিও মণীষা এই যৌন নিগ্রহ নিয়ে বরাবর মুখে কুলুপ এঁটেছেন। আদৌ কী যৌন নিগ্রহ হয়েছিল? রহস্যের জট খুলতে চাননি অভিনেত্রী।

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //