শিল্প মন্ত্রণালয়ের এডিপি বাস্তবায়ন অগ্রগতি হার ৬৮ %

শিল্প মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর/সংস্থার ২০২১-২০২২ অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) বাস্তবায়নাধীন উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর চলতি ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাস্তবায়ন অগ্রগতির হার প্রায় ৬৮ শতাংশ। যা জাতীয় পর্যায়ে বাস্তবায়ন অগ্রগতির তুলনায় বেশি। 

গতকাল রবিবার (২৭ মার্চ) শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে অন্তর্ভুক্ত প্রকল্পগুলোর বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় এ তথ্য জানানো হয়। ভার্চুয়ালি আয়োজিত এ পর্যালোচনা সভায় শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন শিল্প  সচিব জাকিয়া সুলতানা।

সভায় জানানো হয়, ২০২১-২০২২ অর্থবছরে শিল্প মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে মোট ৩৪টি প্রকল্প রয়েছে। এর মধ্যে ৩১টি বিনিয়োগ প্রকল্প, দুইটি কারিগরি সহায়তা ও একটি নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন। সবমিলিয়ে এসব প্রকল্পে বরাদ্দের পরিমাণ চার হাজার ২৫১ কোটি টাকা। এর মধ্যে জিওবি খাতে এক হাজার ৫২২ কোটি  টাকা, প্রকল্প সাহায্য খাতে দুই হাজার ৭০৭ কোটি টাকা এবং সংস্থার নিজস্ব অর্থায়নখাতে ২১ কোটি টাকা বরাদ্দ রয়েছে। 

চলতি অর্থবছরের (২০২১-২২) ফেব্রুয়ারি  পর্যন্ত এসব প্রকল্পের বিপরীতে মোট দুই হাজার ৯১৪ কোটি ১০ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে।

এ পর্যালোচনা সভায় শিল্প প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসি) অনুকূলে সার সংরক্ষণ ও বিতরণ সুবিধার জন্য দেশের বিভিন্ন জেলায় বাফার গোডাউন নির্মাণ প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি ধীর গতিতে চলছে। কৃষকের দোরগোড়ায় সার সরবরাহ পৌঁছে দিতে এ প্রকল্পের কাজ দ্রুত শেষ করতে হবে। আমদানিকৃত সার সঠিক সময়ে গুদামজাত ও বিতরণ হচ্ছে কিনা তার হিসাব রাখতে হবে। 

এছাড়াও প্রতিমন্ত্রী বিসিকের অভ্যন্তরীণ সমস্যা নিরসন করে বিসিক শিল্পনগরীকে এগিয়ে নিতে সকলকে আন্তরিকভাবে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

কামাল মজুমদার বলেন, যেসব প্রকল্প এলাকায় প্রকল্প পরিচালকরা থাকেন না, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। বিভিন্ন দপ্তর সংস্থার প্রধানদেরও প্রকল্প কাজের তদারকি করতে হবে। 

তিনি প্রকল্প-কাজ দ্রুত সময়ের মধ্যে শেষ করার জন্য সকলের ওপর অর্পিত দায়িত্ব সততা, নিষ্ঠা ও দেশপ্রেমের সাথে প্রতিপালনেরও আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন,প্রধানমন্ত্রীর যে নির্দেশনা দিয়েছেন, সে আলোকে আমরা যার যার অবস্থান থেকে শিল্প মন্ত্রণালয়কে এগিয়ে নিয়ে যাব।

শিল্পসচিব বলেন, প্রকল্পের মেয়াদ কোনো ক্রমেই বাড়ানো যাবে না। যথাসময়ের মধ্যে প্রকল্পের কাজ সম্পাদন করতে হবে এবং কাজের অগ্রগতি সন্তোষজনক পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে। দপ্তর/সংস্থার প্রধানদের যেসব নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, তা যথাযথভাবে পালন করত হবে।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন সংস্থা ও করপোরেশনের প্রধানরা ও বিভিন্ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালকরা এ পর্যালোচনা সভায় যোগ দেন।

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //