এক মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ দাম পাম অয়েলের

গত একমাসের মধ্যে মালয়েশিয়ার পাম অয়েলের সরবরাহ মূল্য সর্বোচ্চ পৌঁছেছে। বিশ্বের শীর্ষ রপ্তানিকারক ইন্দোনেশিয়া পণ্যটির রপ্তানি কমাতে যাচ্ছে। এতে ভোজ্যতেলটির দাম ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। 

বার্তাসংস্থা রয়টার্সের বরাত দিয়ে বিজনেস রেকর্ডারের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

গতকাল বুধবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বুরসা মালয়েশিয়া ডেরিভেটিভস এক্সচেঞ্জে পাম অয়েলের আগামী এপ্রিলের সরবরাহ চুক্তি মূল্য বেড়েছে ৫৯ রিঙ্গিত বা ১ দশমিক ৫ শতাংশ। প্রতি টনের দাম স্থির হয়েছে ৩ হাজার ৯৯৮ রিঙ্গিত বা ৯৩০ ডলার ৪২ সেন্ট।

এ নিয়ে টানা তিন দিন এই ভোজ্যতেলের দাম বাড়ল। আগের দিন মঙ্গলবার (৭ ফেব্রুয়ারি) টনপ্রতি পাম অয়েলের একই সময়ের সরবরাহ চুক্তি মূল্য বাড়ে ৭৪ রিঙ্গিত বা ১ দশমিক ৯২ শতাংশ। টনপ্রতি দর স্থির হয় ৩ হাজার ৯২৫ রিঙ্গিত বা ৯১২ ডলার ৫৮ সেন্ট।   

চলতি বছরের প্রথম মাস জানুয়ারিতে মালয়েশিয়ায় পাম অয়েলের মজুত আরও কমেছে। গত ডিসেম্বরের চেয়ে যা শূন্য দশমিক ৬৬ শতাংশ কম। দেশটিতে এখন ২ দশমিক ১৮ মিলিয়ন টন পণ্যটি গুদামজাত রয়েছে। বিগত ৫ মাসের মধ্যে যা সর্বনিম্ন। এটিও ভোজ্যতেলটির দর বৃদ্ধির অন্যতম কারণ।

ইন্দোনেশিয়ায় আসন্ন ইসলামি উৎসব উপলক্ষে ভোজ্যতেলের দাম বেড়ে গেছে। ফলে অভ্যন্তরে সরবরাহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে কিছু পাম অয়েল রপ্তানির অনুমতি স্থগিত করতে যাচ্ছে দেশটি।

গত সোমবার (৬ ফেব্রুয়ারি) ইন্দোনেশিয়ার সিনিয়র ক্যাবিনেট মন্ত্রী লুহুত পান্দজাইতান নিজের অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে এই তথ্য জানান। এরপর থেকেই পাম অয়েলের দাম বাড়ছে। 

এরই মধ্যে ইন্দোনেশিয়ান মুদ্রা রুপিয়া এবং মালয়েশীয় মুদ্রা রিঙ্গিতের মান ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। এতে বিদেশি ক্রেতাদের কাছে পাম অয়েল কেনা ব্যয়বহুল হয়ে পড়েছে।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2023 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //