গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই মাসে তিনবার চুরি

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) থামছেই না চুরির ঘটনা। এবার অফিসার্স কোয়ার্টার থেকে স্যানিটারি ফিটিংস চুরির ঘটনা ঘটেছে। করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘ ছুটিতে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বেড়েছে চুরির ঘটনা। এই চুরি নিয়ে গত দুই মাসে মোট তিনটি চুরির ঘটনা সামনে আসে।

অফিসার্স কোয়ার্টার থেকে স্যানিটারি ফিটিংস চুরির ঘটনা নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের এস্টেট অফিসার সৈয়দ আনিসুল সাদেক বলেন, আমরা কিছুদিন আগে চুরির বিষয়টি জানতে পেরেছি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি ছাদের দরজা দিয়ে ভবনে চোর প্রবেশ করেছে। দরজার কিছু অংশ ভাঙা পেয়েছি। পরবর্তীতে চোর ফ্লাটগুলোর তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে ফিটিংসগুলো চুরি করেছে। তদন্তের পর চুরিকৃত সম্পত্তির মূল্যমান জানা যাবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলী এস .এম. এস্কান্দার আলীকে প্রধান করে রবিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) চার সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইঞ্জিনিয়ার এস.এম এস্কান্দার আলী বলেন তদন্ত কাজ চলছে, আমরা ৬ কার্য দিবসে চুরির ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন দিতে পারবো।

প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতির বন্ধে বশেমুরবিপ্রবিতে ও গোপালগঞ্জের বিভিন্ন ছাত্র মেসে হরহামেশাই ঘটছে চুরির ঘটনা। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার থেকে জুলাইতে ৪৯টি কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটে। আগস্টে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর ঘটনাটি কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। এই ঘটনার তদন্ত শেষ হতে না হতেই ট্যুরিজম ও হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগ থেকে দুটি কম্পিউটার ও ওয়াইফাই রাউটার চুরির ঘটনা সামনে আসে। কয়েক বছরে ৫ দফায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দেড় শতাধিক কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটেছে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh