টেডএক্সের আন্তর্জাতিক ভার্চ্যুয়াল সম্মেলন অনুষ্ঠিত

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি)  অনুষ্ঠিত হয়েছে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন “টেডএক্স” এর সম্মেলন। শনিবার (২৮ নভেম্বর) রাত ৮ টায় ভার্চুয়াল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে  উক্ত অনুষ্ঠানটির আয়োজন হয়। 

টেড (TED-Technology, Entertainment, Design) একটি গণমাধ্যম সংস্থা যা বিনামূল্যে অনলাইনে বিভিন্ন অনুপ্রেরণামূলক আলোচনা প্রচার করে। সংস্থাটির শ্লোগান হচ্ছে "Ideas worth spreading"। এই সংস্থার একটি অঙ্গপ্রতিষ্ঠান হচ্ছে টেডেক্স, যেটি কাজ করছে টেড এর  চেতনা ও ধারণা সম্প্রসারণের জন্য। বশেমুরবিপ্রবি এবং অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রায় দেড় শতাধিক অংশগ্রহণকারী এই ভার্চুয়াল সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। 

সম্মেলনে বক্তা হিসাবে অংশ নিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থার (নাসা) নভোচারী মেগান ম্যাকআর্থার, নাইজেরিয়ান সমাজকর্মী ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ কেমি দা সিলভা-ইবরু, শ্রীলংকান সন্ন্যাসিনী জয়াশ্রী মাথহা, অস্ট্রেলিয়ার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বিষয়ক আইনজীবী জামিলা গর্ডন , ফার্স্ট নেশনস ইউকন অ্যাসেম্বলি কানাডা এর আঞ্চলিক প্রধান ক্লুয়েন আদামেক, খ্যাতিসম্পন্ন ক্যারিবিয়ান ব্যবসায়ীক অখণ্ডতার নেতা  অ্যাঞ্জেলিক প্যারিসট-পটার এবং জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের মহামারী বিষয়ক ফেলো সোফি রোজ । 

এসময় বক্তারা অনুষ্ঠান সম্পর্কে বলেন, '২০২০ সালটি TEDxWomen নির্ভর, যা বিশ্বব্যাপী টেড নারীদের সক্রিয়করণ এর বার্তাটি প্রশস্ত ও স্থানীয়করণের জন্য নকশা করা।' TEDxWomen এর এবারের বিষয়বস্তু  “Fearless” এর বর্ণনা সম্পর্কে ক্যারিবিয়ান ব্যবসায়ীক অখণ্ডতার নেতা  অ্যাঞ্জেলিক প্যারিসট-পটার বলেন, 'আমরা নির্ভীক, কারন আমরা যখন কোন কিছু পেয়েছি, তার চেয়ে ভাল অবস্থা এবং জায়গায় সেগুলো রেখে যাওয়ার পারস্পরিক ক্ষমতার বিষয়টি আমরা বুঝতে পারি।' বর্তমান করোনা মহামারী মোকাবেলায় নারীদের ভূমিকা সম্পর্কে মহামারী বিষয়ক গবেষক সোফি রোজ বলেন, 'নারীরাও  কভিড-১৯ এর টিকা তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন এবং মহামারী পরিস্থিতি কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছেন।'

ভালো থাকার জাদুকরী মন্ত্র উল্লেখ করে শ্রীলঙ্কান সন্ন্যাসীনী জয়াশ্রী মাথহা বলেন, 'আমাদের দিনে অন্তত ২ বার বলা উচিৎ যে আপনাকে ধন্যবাদ, একবার ঘুম থেকে ওঠার পরে এবং আরেকটি ঘুমানোর আগে। তাহলে আপনি যেকোন জীবনের পরিস্থিতি শান্তিপূর্ণভাবে আনন্দের সাথে মোকাবেলায় সহায়তা করতে পারেন।'

উল্লেখ্য, গত ২৮ শে সেপ্টেম্বর, টেডএক্সউইম্যান এর ইভেন্ট আয়োজনের লাইসেন্স পান বশেমুরবিপ্রবির জৈবপ্রযুক্তি এবং জিন প্রকৌশল বিভাগের চূড়ান্ত বর্ষের শিক্ষার্থী মোঃ হাসানুর রহমান (হাসান)।

ভার্চুয়াল সম্মেলনটির সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন বশেমুরবিপ্রবির পরিবেশ বিজ্ঞান ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী বিদিশা ইসলাম এবং তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী ফারহানা ইসলাম দৃষ্টি। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন তানজীর আহমেদ। বিশেষ দায়িত্ব পালন করেন বশেমুরবিপ্রবির শিক্ষার্থী সারোয়ার জাহান, তমা দত্ত, তানজিম ইশরাক, আসাদ-উজ-জামান, কাজী এহসান আহমেদ, মাসুম বিল্লাহ বিশ্বাস, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নাফিসা আহমেদসহ আরো অনেকেই।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বশেমুরবিপ্রবির লোক প্রশাসন বিভাগের চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক  বিতান খানম, প্রভাষক ইমা সুলতানা (চারু) এবং প্রভাষক প্রণীতা দত্ত, শিক্ষার্থী ফাতেমা-তুজ-জিনিয়া।   

সাম্প্রতিক গবেষণা এবং নতুন নতুন চিন্তাধারার উন্মোচন ও সেটা আশেপাশের মানুষের সাথে ভাগাভাগি করে নেওয়ার উদ্দ্যশ্যেই টেডএক্স এর অনুষ্ঠানগুলোর আয়োজন করা হয়করা হয় হয়। শিক্ষার্থীরা বলেন, 'বশেমুরবিপ্রবিতে টেডএক্স অনুষ্ঠান আয়োজিত হওয়ার মাধ্যমে তরুণ শিক্ষার্থীরা বহির্বিশ্বের সাথে যুক্ত হওয়া, নিজেদের মধ্যে নতুন নতুন চিন্তা ও ধারণার উন্মোচন এবং সেগুলো ভাগ করে নেওয়া, দক্ষতা অর্জন ও দৃষ্টিভঙ্গি প্রসারিত হওয়াসহ বিভিন্ন অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারে।'

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh