নির্দেশ উপেক্ষা করে হলে জাবি শিক্ষার্থীরা

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে হলে অবস্থান করছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। আজ সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় হল ছাড়ার নির্দেশের সময় শেষ হওয়ার পরও শিক্ষার্থীরা হল ছাড়েননি।

এদিকে বেলা ১২টার দিকে প্রত্যেক হল প্রভোস্ট স্ব স্ব হলে গিয়ে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের অনুরোধ জানান।

এরআগে গতকাল রবিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় কিছু সংখ্যক শিক্ষার্থী সরকারি নির্দেশ অমান্য করে কোনো কোনো আবাসিক হলে অবস্থান নিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদেরকে ২২ তারিখ সকাল ১০টার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দিচ্ছে। অন্যথায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য হবে।

আ ফ ম কামালউদ্দিন হলের প্রভোস্ট ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান অভিযান পরিচালনার সময় বলেন, আমরা সরকারের নির্দেশনা জানাতে এসেছি। আইন ভঙ্গ করে হলে অবস্থান করা যাবে না। শিক্ষার্থীদের অনুরোধ করছি যাতে তারা আইন মেনে হল ছেড়ে দেন।

শিক্ষার্থীরা কোথায় যাবে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা বাড়ি চলে যেতে পারেন। গেরুয়া এলাকার বিকল্প তো হল হতে পারে না।

শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়ে তিনি আরো বলেন, গেরুয়া এলাকার সমস্যার ব্যাপারে আমরা কথা বলছি। আর আশুলিয়া থানায় মামলা করেছি।

অন্যদিকে শিক্ষার্থীরা কোনোভাবেই হল ছাড়বে না বলে প্রভোস্টকে জানিয়ে দিয়েছে।

শিক্ষার্থীরা বলেন, হামলার ৪৮ ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও সমস্যার সমাধানে কোন উদ্যোগ নেয়নি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। গেরুয়া এলাকায় আটকা পড়া শিক্ষার্থীদের বিদ্যুত বন্ধ করে দিয়েছে। এছাড়া খাবারের দোকান বন্ধ করে দেয়াসহ পার্সেলে খাবার সরবরাহকারীদেরও হুমকি দিয়ে খাবার সরবরাহ বন্ধ রাখা হয়েছে।

তারা বলেন, এরকম অরাজক পরিস্থিতিতে গেরুয়া এলাকায় ফিরে যাওয়া শিক্ষার্থীদের পক্ষে সম্ভব নয়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষার্থীদের নিরাপদ আবাসস্থল নিশ্চিত না করা পর্যন্ত আমরা হল ত্যাগ করবো না।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh