চুয়েটে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) শহিদ মিনারে ফুল দেয়াকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত একজন আহত হয়েছেন। 

বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) দুপুর ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের  বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে ফুল দেয়ার সময় এ ঘটনার সূত্রপাত হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর ১২টায় শেখ রাসেল ও তারেক হুদা হলের ছাত্রলীগের  প্রায় ৫০জন সদস্য ফুল দেয়ার উদ্দেশে বঙ্গবন্ধু ম্যুরালের সামনে জড়ো হন। তখন দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির সূত্রপাত হয়।

শেখ রাসেলের ছাত্রলীগের কর্মীরা অভিযোগ করে বলেন, পুষ্পস্তবক অর্পণের সময়  শহীদ তারেক হুদা হলের শিক্ষার্থী আজহার মাহমুদ তাদের ধাক্কা দেয়। 

এদিকে তারেক হুদা হলের ছাত্রলীগ কর্মীরা বলেন, আজ দুপুর ৩টা নাগাদ তারেক হুদা হলের আজহারুল ইসলাম মাহমুদ (মুন্না) নামক এক শিক্ষার্থীকে শেখ রাসেল হলের ক্যান্টিনে মারধর করা হয়েছে। এরপর তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

অভিযোগ অস্বীকার করে শেখ রাসেল হলের ছাত্রলীগ কর্মী বলেন, ক্যান্টিনে মুন্না আমাদের সকালের ঘটনাকে কেন্দ্র করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। আমরা তাকে থামানোর চেষ্টা করি। এক পর্যায়ে কথা-কাটাকাটি শুরু হয়। এরপর সে তারেক হুদা হলের দিক থেকে অনেক শিক্ষার্থীকে লাঠিসোঁটা নিয়ে শেখ রাসেল হলের দিকে আসতে থাকে। তারা শেখ রাসেল হলের গেটে ভাঙচুর করারও চেষ্টা চালায়।

এ ব্যাপারে  আজহারুল ইসলাম মাহমুদ (মুন্না) এর সাথে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

চুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের পাঠাগার সম্পাদক সৈয়দ ইমাম বাকের ঘটনার বিষয়ে বলেন, এরকম একটি গুরুত্বপূর্ণ দিনে শিক্ষকদের উপস্থিতিতে এমন ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। আমি খুবই মর্মাহত। পরবর্তীতে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে সে ব্যাপারে আমি সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেয়ার চেষ্টা করব।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. রেজাউল করিম বলেন, ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা সম্পর্কে আমরা অবগত। 

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //